kalerkantho


'রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে চাপ বাড়াবে যুক্তরাষ্ট্র'

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৩১ অক্টোবর, ২০১৮ ১১:৪৫



'রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে চাপ বাড়াবে যুক্তরাষ্ট্র'

ছবি অনলাইন

বিদায়ী মার্কিন রাষ্ট্রদূত মার্শা বার্নিকাট বলেছেন, রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে যুক্তরাষ্ট্র মিয়ানমারের ওপর চাপ বাড়াবে। পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলীর সঙ্গে বিদায়ী সাক্ষাতের সময় বার্নিকাট বলেন, তার সরকার রোহিঙ্গা সংকটের ওপর বিশেষ দৃষ্টি দিচ্ছে এবং এ সমস্যার একটি টেকসই সমাধানে পৌঁছতে যুক্তরাষ্ট্র আরো পদক্ষেপ গ্রহণ করবে।

এ বিষয়ে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বিদায়ী মার্কিন রাষ্ট্রদূত আজ রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলীর সঙ্গে বিদায়ী সাক্ষাতকালে এ আশ্বাস দেন।

বার্নিকাট আশা প্রকাশ করেন যে, আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া যত শিগগির সম্ভব শুরু করতে মিয়ানমারের ওপর চাপ বাড়াবে।

সাক্ষাতকালে মাহমুদ আলী বাংলাদেশে সফলভাবে দায়িত্ব পালন সম্পন্ন করার জন্য বার্নিকাটকে অভিনন্দন জানান।
মাহমুদ আলী বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যকার সম্পর্ক আরো গভীর করার ক্ষেত্রে মার্কিন রাষ্ট্রদূত যে ভূমিকা পালন করেছেন তার ভূয়সী প্রশংসা করেন।

বার্নিকাট বাংলাদেশে উল্লেখযোগ্য আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন নিশ্চিত করার ক্ষেত্রে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গতিশীল নেতৃত্ব ও নিরলস প্রচেষ্টার ভূয়সী প্রশংসা করেন।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি অর্জন করেছে এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জনগণকে তাদের জীবনযাত্রায় ইতিবাচক পরিবর্তন আনার আত্মবিশ্বাস যুগিয়েছেন।

বার্নিকাট আশ্বাস দেন যে, মার্কিন সরকার অগ্রগতি ও সমৃদ্ধির পথে বাংলাদেশের অগ্রযাত্রায় তার সহায়তা অব্যাহত রাখবে।
তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্র সরকার বাংলাদেশের জ্বালানি খাতে অধিকতর বিনিয়োগের কথা বিবেচনা করছে এবং কিছু বড় বড় মার্কিন কোম্পানি এখানকার বিভিন্ন সম্ভাবনাময় খাতে বিনিয়োগের আগ্রহ প্রকাশ করছে।

মার্কিন রাষ্ট্রদূত বিগত বছরগুলোতে দু’দেশের মধ্যকার বিনিয়োগ ইতিবাচক ধারা প্রদর্শন করছে বলে উল্লেখ করেন।

তিনি বলেন, বাণিজ্য ও বিনিয়োগের বর্তমান ধারা অব্যাহত থাকলে যুক্তরাষ্ট্র ও বাংলাদেশের মধ্যকার সম্পর্ক আরো সংহত হবে।
বিকেলে বার্নিকাট পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলমের সঙ্গেও তার দফতরে সাক্ষাৎ করেন। সূত্র : বাসস।



মন্তব্য