kalerkantho


রোহিঙ্গা শরণার্থীদের জন্য ত্রাণসামগ্রী পাঠাল রংপুর চেম্বার

রংপুর অফিস    

৪ নভেম্বর, ২০১৭ ২১:০৮



রোহিঙ্গা শরণার্থীদের জন্য ত্রাণসামগ্রী পাঠাল রংপুর চেম্বার

মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গা শরণার্থীদের জন্য ১৮ লাখ টাকার ত্রাণসামগ্রী পাঠিয়েছে রংপুর চেম্বার। আজ শনিবার রংপুর চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির পক্ষে দুটি ত্রাণবাহী ট্রাক রংপুর থেকে কক্সবাজারের উদ্দেশে যাত্রা শুরুর প্রাক্কালে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

চেম্বার ভবনের আরসিসিআই অডিটরিয়ামে রংপুর চেম্বারের সভাপতি মোস্তফা সোহরাব চৌধুরী টিটুর সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রংপুরের জেলা প্রশাসক মুহাম্মদ ওয়াহিদুজ্জামান।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন রংপুর চেম্বারের সিনিয়র সহসভাপতি মোজতোবা হোসেন রিপন, সহসভাপতি মনজুর আহমেদ আজাদ, এফবিসিসিআই'র পরিচালক ও রংপুর চেম্বারের সাবেক সভাপতি আলহাজ মোছাদ্দেক হোসেন বাবলু, রংপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি সদরুল আলম দুলু, রিলিফ ও সম্মাননা প্রদানবিষয়ক উপপরিষদের আহ্বায়ক খেমচাঁদ সোমানী রবি প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, রোহিঙ্গা শরণার্থী অনুপ্রবেশের ফলে ধ্বংস হচ্ছে পর্যটন শিল্প, দূষিত হচ্ছে পরিবেশ, উজাড় হচ্ছে পাহাড়ের বন-জঙ্গল। হুমকির মুখে পড়েছে দেশের অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড। রোহিঙ্গা শরণার্থীদের দ্রুত মিয়ানমারে ফিরিয়ে নেওয়ার ব্যাপারে  কার্যকারী পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানান তারা।

জেলা প্রশাসক মুহাম্মদ ওয়াহিদুজ্জামান বলেন, "মানুষ মানুষের জন্য, জীবন জীবনের জন্য- এ স্লোগানকে সামনে রেখে রংপুর চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গা শরণার্থীদের জন্য ত্রাণ সহায়তা প্রদান করে যে মানবিকতা দেখিয়েছে- তা সত্যিই প্রশংসনীয়। এ কর্মকাণ্ডে যেসব ব্যবসায়ী আর্থিক সহায়তা প্রদান করে মহানুভবতা প্রদর্শন করেছেন সে জন্য তিনি রংপুরের ব্যবসায়ীদের আন্তরিক ধন্যবাদ জানান।

ত্রাণসামগ্রীর মধ্যে রয়েছে কম্বল চার হাজার, প্লাস্টিকের বালতি তিন হাজার, চাল চার টন, মশারি ৪০০, বোতলজাত ভোজ্যতেল এক টন, শুকনো খাবার তিন টন ও আলু ১০ টন। অনুষ্ঠানে রংপুর চেম্বারের সাবেক ও বর্তমান কর্মকর্তা ও পরিচালকবৃন্দ, বিশিষ্ট শিল্পপতি ও ব্যবসায়ীবৃন্দ, বিভিন্ন ব্যবসায়ীক সমিতির নেতৃবৃন্দ, রিলিফ ও সম্মাননা প্রদানবিষয়ক উপপরিষদের সদস্যবৃন্দ, রংপুর উইমেন চেম্বারের নেতৃবৃন্দ এবং প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।


মন্তব্য