kalerkantho


নাফ নদীতে নৌকাডুবি, আরো ছয় রোহিঙ্গার মরদেহ উদ্ধার

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১০ অক্টোবর, ২০১৭ ০৮:৫৬



নাফ নদীতে নৌকাডুবি, আরো ছয় রোহিঙ্গার মরদেহ উদ্ধার

কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলা সীমান্তের নাফ নদীতে রোহিঙ্গাবাহী নৌকাডুবির ঘটনায় নিখোঁজ আরো ছয়জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। গতকাল সোমবার রাত ১০টার পর থেকে ওই ছয়জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন টেকনাফ থানার ওসি মো. মাঈন উদ্দিন।

এ নিয়ে এখন পর্যন্ত মোট ১৮ রোহিঙ্গার মরদেহ উদ্ধার করেছেন বাংলাদেশি উদ্ধারকারীরা।

ওসি মঈনউদ্দিন আরো জানান, জোয়ারে মরদেহগুলো তীরের দিকে ভেসে আসার পর উদ্ধার করা হয়।   

দুর্ঘটনার পর থেকেই কোস্ট গার্ড ও বিজিবি এবং স্থানীয়দের প্রচেষ্টায় উদ্ধার অভিযান চলছে। টেকনাফ ২ বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্নেল এস এম আরিফুল ইসলাম জানান, এখন পর্যন্ত জীবিত উদ্ধার হয়েছেন ১২ রোহিঙ্গা নারী-পুরুষ ও শিশু। এখনো অনেকেই নিখোঁজ রয়েছেন দাবি করেছেন উদ্ধার হওয়া নৌকার যাত্রীরা।

এ ব্যাপারে স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য ফজলুল হক জানান, রবিবার রাতে ৬০ জনের মতো রোহিঙ্গা বাংলাদেশি নৌকায় করে নাইক্ষ্যং দ্বীপ থেকে শাহপরীর দ্বীপে আসছিলেন। কিন্তু প্রবল ঢেউয়ে নদীর গোলারচরের ডুবোচরে নৌকাটি আটকে যায়। তখন প্রবল ঝোড়ো হাওয়ায় নৌকাটি উল্টে গেলে সবাইকে ভাসিয়ে নিয়ে যায়।

তিনি আরো জানান, গতকাল সোমবার ভোর থেকে আজ সকাল পর্যন্ত জালিয়াপাড়ায় নদী থেকে তিন মেয়ে শিশু, দুই ছেলে শিশু, ৬০ বছরের এক নারী এবং ১০ বছর বয়সী এক কিশোরসহ সাতজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

আরো ছয়জনের মরদেহ উদ্ধার হয়েছে গোলারচর এলাকা থেকে। এর মধ্যে সত্তরোর্ধ্ব এক ব্যক্তি রয়েছেন, আর বাকি পাঁচজন ছেলে শিশু।

এর আগে গত ২৮ সেপ্টেম্বর টেকনাফের উখিয়ার ইনানী সৈকতের কাছে সাগরে রোহিঙ্গাবাহী নৌকাডুবির ঘটনায় ২০ জনের প্রাণহানি ঘটে।


মন্তব্য