kalerkantho


সৌদিদের সম্মেলনটা কি শুধুই যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে ছিল!

রাকিব হাসান

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৯ মে, ২০১৭ ২০:২২



সৌদিদের সম্মেলনটা কি শুধুই যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে ছিল!

রিয়াদের সড়কে ট্রাম্প-সালমানের ছবি সম্বলিত বিলবোর্ড

সম্প্রতি সৌদি আরবের রাজধানী রিয়াদে আরব ইসলামিক আমেরিকান (এআইএ) সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সৌদি আরবসহ অপরাপর ৫৫টি দেশের রাষ্ট্রনায়ক-শাসকদের সঙ্গে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পও এ সম্মেলনে অংশ নেন।

 

সফরকালে এক অনুষ্ঠানে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের গলায় মেডেল ঝুলিয়ে দিচ্ছেন বাদশাহ সালমান 

সম্মেলন উপলক্ষে সাজানো হয় পুরো রাজধানী শহর রিয়াদ। গুরুত্বপূর্ণ সড়ক এবং স্থাপনায় সম্মেলনে অংশ নেয়া দেশগুলোর জাতীয় পতাকাসহ তাদের রাষ্ট্র প্রধানদের ছবি থাকাটাই স্বাভাবিক ছিল। মজার বিষয় হচ্ছে, সম্মেলনের দিন ছাড়া বোঝাই গেল না যে, যুক্তরাষ্ট্র ছাড়া আর কোনো দেশ এই সম্মেলনের অংশগ্রহণকারী! সারা রিয়াদে সৌদি বাদশা আর মার্কিন প্রেসিডেন্টের হাসিমাখা ছবিতে সয়লাব। অন্য কোনো দেশ যে এই সম্মেলনের অংশ, সাধারণ মানুষ তথা সৌদি নাগরিকদের সেটা বোঝার কোনো উপায় ছিল না। প্রসঙ্গত, রিয়াদে শপিংমলগুলোতে বিজ্ঞাপনে থাকা মডেলদের ছবির মুখের অবয়ব ব্লার (ঝাপসা) করে দেয়া থাকে।

আমার পর্যবেক্ষণে দেখেছি, সাধারণ সৌদিদের আগ্রহের মূলে ছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট এবং তার স্ত্রী। তবে সবচে বেশি আগ্রহ ছিল ট্রাম্প তনয়ার প্রতি। স্থানীয় নাগরিকদের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোর প্রোফাইল ঘাঁটলেই যার প্রমাণ মিলবে।  

শুধু ট্রাম্প আর সালমানের ছবি সম্বলিত বিলবোর্ডের বিষয়টি সামাজিক মাধ্যমেও আলোচনার বিষয়ে পরিণত হয়

গত ২১ মে প্রথমবারের মতো আয়োজিত আরব ইসলামিক আমেরিকান (এআইএ) এই সম্মেলনে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এবং ৫৬ জন আরব ও মুসলিম নেতা যোগ দেন।

 
 
শীর্ষ সম্মেলনে যোগদানকারী অন্যান্যের মধ্যে ছিলেন কুয়েত, কাতার ও সংযুক্ত আরব-আমিরাতের আমির, বাহরাইনের বাদশাহ, ব্রুনাই দারুস সালামের সুলতান, মিসর, উজবেকিস্তান, ইন্দোনেশিয়া, বেনিন, লেবানন, মৌরিতানিয়া, তিউনিশিয়া, ফিলিস্তিন, ইরাক ও নাইজারের প্রেসিডেন্ট, পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী, আলজেরিয়া পার্লামেন্টের চেয়ারম্যান এবং উগান্ডার পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

সাধারণত যে কোনো আন্তর্জাতিক সম্মেলনের আগে সম্মেলনস্থলে নিদেনপক্ষে অংশ নেয়া দেশগুলোর পতাকা টানানোর রীতি রয়েছে। তবে আশ্চর্যজনক হলেও সত্যি যে, এআইএ সম্মেলন শুরু হওয়ার দিন স্থানীয় সময় দুপুর ১টা পর্যন্ত মার্কিন ছাড়া অন্য কোনো দেশের পতাকা সেখানে দেখা যায়নি। সম্মেলনস্থল হোটেল ম্যারিয়টের সীমানা প্রাচীরে শুধুই মার্কিন পতাকা দেখা গেছে। হোটেলের সামনের সড়কে, ডিভাইডারে ডোনাল্ড ট্রাম্প আর বাদশা সালমানের ছবি ছাড়া অন্য কোনো দেশের রাষ্ট্রপ্রধানের ছবি চোখে পড়েনি। তবে হোটেলের উল্টা দিকে তিন-চারশ গজ দূরে সড়কের মোড়ে, অংশ নেয়া দেশগুলোর একটি করে পতাকা উড়তে দেখা গেছে। পুরো পরিবেশের সঙ্গে ব্যাপারটা আক্ষরিক অর্থেই হাস্যকর লেগেছে।

তবে এ নিয়ে মিডিয়ায় কেউ খুব একটা উচ্চবাচ্য করেছে বলে মনে হয় না।  

লেখক: সৌদি প্রবাসী সাংবাদিক


মন্তব্য