kalerkantho


'তোরে আইজ মাইরাই ফালামু'

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২২:০৪



'তোরে আইজ মাইরাই ফালামু'

রাজধানীর কারওয়ান বাজারের স্টার কাবাবের সামনের রাস্তা দিয়ে মোটরসাইকেল চালিয়ে যাচ্ছিলেন ইমরান সিদ্দিকী নামে এক প্রবাসী বাংলাদেশি। এমন সময় এক সিএনজি তার মোটরসাইকেলে ধাক্কা দেয়। এর কারণ জানতে চাইলে সিএনজির চালক তার ওপর দিয়ে সিএনজি উঠিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করেন। জীবন বাঁচাতে তখন মোটরসাইকেলের চালক সিএনজির গ্রিল ধরে ঝুলে পড়েন। প্রাণে বাঁচার তাগিদে প্রবাসী ইমরান বলেন, 'ভাই আমি মারা যাবো, প্লিজ গাড়িটা থামান, আমি নেমে যাই। ' তখন চালক বলে- 'তোরে আইজ মাইরাই ফালামু। ' এ বলে চালক ডানে-বামে ঘুরিয়ে অন্য গাড়ির সঙ্গে চাপা দিতে থাকে। অবস্থা বেগতিক দেখে এক পর্যায়ে তিনি লাফ দিয়ে রাস্তায় পড়ে যান। বুধবার একটি দৈনিক পত্রিকার ফটো সাংবাদিকের ক্যামেরায় উঠে আসে এই দুর্ঘটনার চিত্র।

দুর্ঘটনার শিকার ওই মোটরসাইকেল চালক ইমরান সিদ্দিকী (৩৫) জানান, তিনি আমেরিকা প্রবাসী। সম্প্রতি তিনি আমেরিকা থেকে বাংলাদেশে আসেন।


প্রয়োজনীয় কাজ শেষ নগরভবন থেকে ফেরার পথে কারওয়ান বাজারে স্টার কাবাব হোটেলে খাবার খেতে গাড়ি পার্কিং করতে যান। এসময় ওই সিএনজিটি পেছন থেকে তার মোটরসাইকেলকে ধাক্কা দেয়। তিনি নিজে আহত হলেও আটকানো যায়নি সিএনজি চালককে।
ইমরান জানান, সিএনজি চালক আমার উপর চড়াও হওয়ায় আমি সিএনজির গ্রিলে ধরে ফেলি। কিন্তু চালক সিএনজি না থামিয়ে চালাতে থাকে । এতে করে আমি ঝুলে যাই। পাশের প্রাইভেট কার ও সিএনজির ফাঁকে আটকে যাওয়ার দশা হয় আমার। বাঁচার চেষ্টা থেকে সিএনজি চালককে বলি, 'ভাই আমি মারা যাবো, প্লিজ গাড়িটা থামান, আমি নেমে যাই। '
তখন চালক বলে- 'তোরে আইজ মাইরাই ফালামু। ' এ বলে চালক গাড়ি ডানে-বামে ঘুরিয়ে আমাকে অন্য গাড়ির সঙ্গে চাপা দিতে থাকে। অবস্থা বেগতিক দেখে এক পর্যায়ে আমি লাফ দিয়ে রাস্তায় পড়ে যাই।
এ ঘটনার সময় সিএনজিকে ধাওয়া করে আটকানোর চেষ্টা করেছেন মফিজুল ইসলাম নামে আরেক ব্যক্তি। তিনি জানান, সিএনজির পিছু নিয়ে তেজগাঁও কলেজের সামনে পুলিশের সহায়তায় সিএনজিটিকে আটক করেন। কিন্তু পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে ওই চালক উধাও হয়ে যান!


মন্তব্য