kalerkantho

শিক্ষার্থীদের অভিযোগ

টাকা ছাড়া কামিলের ভাইভা নেওয়া হয়নি

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী   

২৫ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ১ মিনিটে



রাজশাহী নগরীর দারুস সালাম মাদরাসার অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে কামিলের (স্নাতকোত্তর) মৌখিক পরীক্ষার (ভাইভা) জন্য শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে ২০০ টাকা করে আদায়ের অভিযোগ উঠেছে। এ নিয়ে শিক্ষার্থীরা ক্ষুব্ধ।

শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, মাদরাসাটির প্রথম ও দ্বিতীয় বর্ষের মোট ৬৫০ জন শিক্ষার্থী এবার কালিম পরীক্ষা দিয়েছে। গতকাল তাদের ভাইভা ছিল। নির্ধারিত সময় অনুযায়ী সকাল ৮টার মধ্যেই মাদরাসায় হাজির হয় পরীক্ষার্থীরা। কিন্তু হলে ঢোকার আগেই তাদের কাছ থেকে ২০০ টাকা করে আদায় করা হয়। যারা টাকা দিতে চায়নি তাদের হলে ঢুকতে দেওয়া হয়নি। পরে বাধ্য হয়ে প্রত্যেক শিক্ষার্থী ২০০ টাকা করে দিয়েই ভাইভায় অংশ নেয়।  

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক পরীক্ষার্থী বলেন, ‘এক বন্ধুর কাছ থেকে ধার করে টাকা দিয়েছি।’ আরেক পরীক্ষার্থী বলেন, ‘টাকা দিতে না পারায় আমাকে ঘণ্টাখানেক বাইরে দাঁড় করিয়ে রাখা হয়েছিল। পরে বাড়ি থেকে মোবাইল ফোনে বিকাশের মাধ্যমে টাকা নিয়ে শেষে ভাইভা দিতে পেরেছি।’

 

 

মন্তব্য