kalerkantho


রাজৈরে ডাকাতি আটক ১

রাজৈর (মাদারীপুর) প্রতিনিধি   

১৩ নভেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলার উল্লাবাড়ী গ্রামে রবিবার রাতে তিন বাড়িতে ডাকাতি হয়েছে। ডাকাতদের হামলায় চারজন আহত হয়েছে। এ সময় ডাকাতদল লক্ষাধিক টাকার মালপত্র লুট করে পালিয়ে যাওয়ার সময় এলাকাবাসীর গণপিটুনির শিকার হয়েছে এক ডাকাত। পরে ওই ডাকাত সদস্যসহ আহত পাঁচজনকে রাজৈর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

পুলিশ, এলাকাবাসী ও হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, রাজৈরের উল্লাবাড়ী গ্রামে ডাকাতদল প্রথমে বিন্দু মণ্ডলের বাড়িতে ঢোকে। অস্ত্রের মুখে বাড়ির সদস্যদের জিম্মি করে পাঁচ হাজার টাকা ও মোবাইল ফোনসেট নিয়ে যায়। পরে একই বাড়ির প্রেমচাঁদ শীলের ঘরে ঢুকে অস্ত্রের মুখে সবাইকে জিম্মি করে ৩০ হাজার টাকা নিয়ে যায়।

এদিকে একই গ্রামের সুধাংশু ঘরামী রাত ৩টার দিকে প্রকৃতির ডাকে ঘরের বাইরে বের হলে পূর্ব থেকে ওত পেতে থাকা মুখোশধারী ডাকাতদল তাঁর ঘরে ঢোকে। সবাইকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে নগদ টাকাসহ লক্ষাধিক টাকার মালপত্র লুট করে নিয়ে যায়। এ সময় সুধাংশু ও জ্ঞানেন্দ্রনাথ ঘরামী চিৎকার দিলে ক্ষিপ্ত হয়ে ডাকাতরা এলোপাতাড়ি তাঁদের কোপাতে থাকে। এতে সুধাংশু ঘরামী (৪২), তাঁর ছেলে শান্ত ঘরামী (১৮), জ্ঞানেন্দ্রনাথ ঘরামী (৪০) ও তাঁর ছেলে এইচএসসি পরীক্ষার্থী সজীব ঘরামী (১৭) গুরুতর আহত হয়। আহতদের সোমবার ভোরে রাজৈর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তাদের চিৎকার শুনে এলাকাবাসী ডাকাতদের ধাওয়া করে। এ সময় মাহাবুব খান (৩৫) নামের এক ডাকাত সদস্য ধরা পড়লে তাকে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়।

 



মন্তব্য