kalerkantho


পূজামণ্ডপের সাংস্কৃতিক মঞ্চে হামলা

ধুনটে মাদকাসক্ত যুবলীগ নেতাসহ আটক ২

ধুনট (বগুড়া) প্রতিনিধি   

২০ অক্টোবর, ২০১৮ ০০:০০



বগুড়ার ধুনট উপজেলায় শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষে আয়োজিত সাংস্কৃতিক মঞ্চে হামলার সময় মাদকাসক্ত যুবলীগ নেতাসহ দুই যুবককে হাতেনাতে আটক করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার রাতে ধুনট কেন্দ্রীয় মন্দিরে দুর্গাপূজামণ্ডপ এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয়। আটককৃতরা হলেন ধুনট পৌর এলাকার অফিসারপাড়ার শাহাদৎ হোসেনের ছেলে ৩ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি তহিদুল ইসলাম পলাশ (২১) ও সিরাজগঞ্জের কাজিপুর উপজেলার উত্তর পাইকপাড়া গ্রামের বেলাল হোসেনের ছেলে রায়হান বাবু টুটুল (২৪)।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, দুর্গাপূজা উপলক্ষে ধুনট কেন্দ্রীয় মন্দির প্রাঙ্গণে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে পূজা উদ্যাপন কমিটি। বৃহস্পতিবার রাত ১০টার দিকে ওই মঞ্চে একজন নারী শিল্পী নৃত্য প্রদর্শন করছিলেন। এ সময় দর্শক গ্যালারি থেকে যুবলীগের নেতাকর্মীরা মঞ্চে উঠে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির চেষ্টা করে। এতে বাধা দিলে পূজা উদ্যাপন কমিটির লোকজনের ওপর ক্ষুব্ধ হয় যুবলীগের নেতাকর্মীরা। এ সময় দুই পক্ষের মধ্যে ধাক্কাধাক্কির একপর্যায়ে যুবলীগের নেতাকর্মীরা ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। এ ঘটনার ৩০ মিনিট পর যুবলীগের নেতাকর্মীরা সংঘবদ্ধ হয়ে দ্বিতীয় দফায় পূজামণ্ডপের সাংস্কৃতিক মঞ্চে হামলা চালায়। এ সময় কর্তব্যরত পুলিশ সদস্যরা মাদকাসক্ত যুবলীগ নেতাসহ দুজনকে আটক করেন। তবে হামলাকারী অন্যরা পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় এসআই শফিকুল ইসলাম বাদী হয়ে যুবলীগের সাত নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা করেছেন।

তবে ধুনট থানা হাজতে আটক তহিদুল ইসলাম পলাশ বলেন, ‘অনুষ্ঠানে গান শোনার সময় কে বা কারা পেছন দিক থেকে আমাদের পর চেয়ার ছুড়ে মারে। এ ঘটনা নিয়ে হৈ-হুল্লোড় হয়েছে। সাংস্কৃতিক মঞ্চে কোনো হামলার ঘটনা ঘটেনি।’

ধুনট থানার ওসি খান মো. এরফান বলেন, ‘হামলার ঘটনায় সাতজনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। আটককৃতদের মধ্যে দুজনকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এ মামলার অন্য আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।’

 



মন্তব্য