kalerkantho


রূপগঞ্জে ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল

রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি   

১৪ অক্টোবর, ২০১৮ ০০:০০



বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপারসন তারেক রহমানের বিরুদ্ধে রায়ের প্রতিবাদে নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে বিক্ষোভ মিছিল করেছে ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা। শনিবার সকালে উপজেলার কোশাব এলাকার এশিয়ান হাইওয়ে (বাইপাস) সড়কে এ বিক্ষোভ মিছিল করা হয়। এ সময় সংক্ষিপ্ত সভায় বক্তব্য দেন ছাত্রদল নেতা মেহেদী হাসান কামাল, সালাউদ্দিন, মহি, তুষার, সুমন, মামুন, আলামিন, ফেরদাউস, সারোয়ার, তামিম, নুরমাহমুদ, মাসুম, অমিত, নাদিম প্রমুখ। বক্তারা বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার অন্যায়ভাবে তারেক রহমানসহ বিএনপি ও এর অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করছে। এ ছাড়া উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে বানোয়াট রায় দিয়েছে। এ রায়ের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান নেতারা।

শেখ রাসেল সেতু নামকরণের দাবিতে মানববন্ধন

শীতলক্ষ্যা নদীর ওপর নির্মিত সেতুর নাম ‘শেখ রাসেল সেতু’ করার দাবিতে মানববন্ধন করেছে উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। গতকাল শনিবার সকালে মুড়াপাড়া বাজার এলাকায় দলীয় কার্যালয়ের সামনে মানববন্ধনটি অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান হারেজ, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের সহসভাপতি ও তারাব পৌরসভার সাবেক মেয়র মাহবুবুর রহমান খান, রূপগঞ্জ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মশিউর রহমান তারেক, উপজেলা যুব মহিলা লীগের আহ্বায়ক সিথী আক্তার, শ্রমিক লীগ নেতা কাজী মজিদ, মিলন ভূঁইয়া, যুবলীগ নেতা ফয়েজ আহমেদ, আব্দুল আউয়াল প্রমুখ।

উন্নয়ন ভাবনা নিয়ে সংবাদ সম্মেলন

সরকারের সাফল্য অর্জন, উন্নয়ন ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ উদ্যোগে জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাস প্রতিরোধ বিষয়ে জনগণকে অবহিত করতে নারায়ণগঞ্জ জেলা তথ্য অফিসের উদ্যোগে সংবাদ সম্মেলন করা হয়েছে। শনিবার দুপুরে রূপগঞ্জ প্রেস ক্লাবের মিলনায়তনে এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন জেলা তথ্য কর্মকর্তা সিরাজ উদ-দৌলা খান।

কন্যাশিশু দিবসে শোভাযাত্রা

জাতীয় কন্যাশিশু দিবস উদ্‌যাপন উপলক্ষে নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলায় বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা ও আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলা চত্বর থেকে শোভাযাত্রাটি বের হয়ে বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে। পরে উপজেলা মিলনায়তনে আলোচসভায় সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবুল ফাতে মো. সফিকুল ইসলাম।



মন্তব্য