kalerkantho


কৃষি বিভাগের জমিতে ছাত্রলীগ নেতার দোকান

নাটোর প্রতিনিধি   

২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



কৃষি বিভাগের জমিতে ছাত্রলীগ নেতার দোকান

নাটোরের নলডাঙ্গা উপজেলায় কৃষি বিভাগের জায়গা দখল করে ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মিনাজুল আবেদিন মিঠুন দোকানঘর নির্মাণ করছেন। ছবি : কালের কণ্ঠ

নাটোরের নলডাঙ্গা উপজেলায় কৃষি বিভাগের জায়গা দখল করে ইউনিয়ন ছাত্রলীগের এক নেতার বিরুদ্ধে দোকানঘর নির্মাণের অভিযোগ উঠেছে। উপজেলার খাজুরা বাজারের প্রবেশমুখে কৃষি বিভাগের পরিত্যক্ত গোডাউনের জায়গা দখল করে শনিবার থেকে খাজুরা ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মিনাজুল আবেদিন মিঠুন দোকানঘর নির্মাণ করছেন। এ কাজে স্থানীয় কৃষি বিভাগের নিষেধ মানছেন না তিনি।

জানা যায়, উপজেলার খাজুরা মৌজায় ৮ শতাংশ জমির ওপর অনেক আগে কৃষি বিভাগের একটি গোডাউন ছিল। বর্তমানে ঘরটি ব্যবহারের অনুপযোগী হওয়ায় তা পরিত্যক্ত অবস্থায় পড়ে আছে। এ সুযোগে জায়গাটি দখল করে বিভিন্ন স্থাপনা তৈরি করে ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান গড়ে তোলে স্থানীয় প্রভাবশালীরা। পরে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সময় কৃষি বিভাগের নামের জায়গায় অবৈধভাবে গড়ে ওঠা স্থাপনাগুলো উচ্ছেদ করে প্রশাসন। উচ্ছেদের কিছুদিন পর আবারও ওই জায়গা দখল করে স্থাপনা তৈরির কাজ শুরু করে স্থানীয় প্রভাবশালীরা। এর অংশ হিসেবে গত শনিবার থেকে টিনের ঘর নির্মাণ করছেন ছাত্রলীগ নেতা মিনাজুল আবেদিন মিঠুন, তাঁর তিন ভাই মকসেদ, মতিন ও মকলেজ।

এ ব্যাপারে খাজুরা ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মিনাজুল আবেদিন মিঠুন বলেন, ‘আমি খাজুরা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান খলিলুর রহমান ও নাটোর-২ আসনের সংসদ সদস্যের অনুমতি নিয়ে দোকানঘর নির্মাণ করছি।’

খাজুরা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান খলিলুর রহমান বলেন, ‘কৃষি বিভাগের জায়গা দখল করে কাউকে ঘর নির্মাণের অনুমতি দেওয়ার প্রশ্নই ওঠে না। মিঠুন পাশ কাটিয়ে যাওয়ার জন্য আমার ও এমপির নাম বলছে।’

এ ব্যাপারে নাটোর কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক কৃষিবিদ রফিকুল ইসলাম জানান, জায়গাটি দখলমুক্ত করতে সব ধরনের উদ্যোগ নেওয়া হবে।



মন্তব্য