kalerkantho


সিলেটের দুই ইউনিয়ন ১৫ বছর ভোটবঞ্চিত

বিশ্বনাথ (সিলেট) প্রতিনিধি   

২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



সিলেটের বিশ্বনাথের দশঘর ইউনিয়ন ও জগন্নাথপুরের মিরপুর ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন হচ্ছে না দীর্ঘ ১৫ বছর ধরে। দুই উপজেলার সীমান্ত নিয়ে বিরোধের কারণে নির্বাচন থেকে বঞ্চিত রয়েছেন দুই ইউনিয়নবাসী। এ নিয়ে তাদের মধ্যে ক্ষোভ ও হতাশা বিরাজ করছে। একটি পক্ষ নির্বাচনের দাবিতে হাইকোর্টে রিট করলেও আরেক পক্ষ আপিল করেছে। এতে নির্বাচনের ভবিষ্যৎ অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। আর কবে দুই ইউনিয়নের নির্বাচন হবে, এ ব্যাপারে নিশ্চিতভাবে কেউ কিছু বলতে পারছেন না।

এদিকে সম্প্রতি ‘দশঘর-মিরপুর ইউনিয়ন’-এর নির্বাচন বাস্তবায়ন কমিটি গঠন করা হয়। অবিলম্বে ইউনিয়ন দুটির নির্বাচন আয়োজনের পদক্ষেপ নেওয়ার দাবিতে বিভিন্ন সময় সভা-সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

স্থানীয় বিভিন্ন সূত্রে জানা যায়, সর্বশেষ ২০০৩ সালে জগন্নাথপুরের মিরপুর ও বিশ্বনাথের দশঘর ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ওই সময় মিরপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন আকমল হোসেন ও দশঘর ইউনয়নের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন প্রবাসী শফিক উদ্দিন। পরে ২০০৮ সালে জগন্নাথপুর উপজেলা পরিষদের নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করার জন্য আকমল হোসেন ওই পদ থেকে অব্যাহতি নেন। তখন ইউপি সদস্য জমির উদ্দিনকে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের দায়িত্ব দিয়ে যান তিনি। এরপর দীর্ঘ ১৫ বছর পেরিয়ে গেলেও আর কোনো নির্বাচন হয়নি। চেয়ারম্যানবিহীন পুরনো ইউপি সদস্যদের নিয়ে কোনো রকমে জোড়াতালি দিয়ে চলছে কার্যক্রম। এতে অনির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদের স্বচ্ছতা-জবাবদিহি ও ইউনিয়নের কাঙ্ক্ষিত উন্নয়ন নিয়ে জনমনে নানা প্রশ্নের সৃষ্টি হয়েছে।

এ ব্যাপারে দশঘর-মিরপুর ইউনিয়নর নির্বাচন বাস্তবায়ন কমিটির আহ্বায়ক আবুল হোসেন বলেন, ‘দুটি ইউনিয়নে ১৫ বছর ধরে কোনো নির্বাচন অনুষ্ঠিত না হওয়ার কারণে এলাকাবাসী নিজেদের কাঙ্ক্ষিত উন্নয়ন পাওয়া থেকে বঞ্চিত থাকার পাশাপাশি পারছেন না নিজেদের পছন্দের কোনো ব্যক্তিকে জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত করতে। দুটি ইউনিয়নের সব সমস্যার সমাধান করে নির্বাচন হওয়ার দাবি জানিয়ে সরকারের সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের জরুরি হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন তিনি।



মন্তব্য