kalerkantho


‘কেউ কার্ড দেয় না’

মধুপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি   

২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



‘কেউ কার্ড দেয় না’

শাহাতন বেগম

শাহাতন বেগম। বয়স ৭০ বছর। এই বয়সেও ভিক্ষা করে জীবিকা নির্বাহ করেন। থাকেন টাঙ্গাইলের মধুপুরের আলোকদিয়া ইউনিয়নের বেকার কোনা গ্রামে। সরকার বয়স্কদের ভাতা দেয়—এ কথা শুনে কার্ডের জন্য দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন তিনি। বাড়ি থেকে ৫০০ গজ দূরে নিজ ইউপি সদস্য মোস্তফার কাছে গিয়েও ফল পাননি।

গত রবিবার শাহাতন বেগম বলেন, ‘বয়স্ক ভাতা কার্ডের জন্য মেম্বার (ইউপি সদস্য), চেয়ারম্যানদের দ্বারে দ্বারে ঘুরেও কার্ড পাইতাছি না। কেউ আমারে একটা কার্ড দেয় না। চার থেকে পাঁচ দিন আগে আমাগো চেয়ারম্যানের কাছে গেলে চেয়ারম্যান আমারে বকাবকি করে। কয়, আমারে তোমরা ভোট দেওনি।’ তিনি আরো বলেন, ‘আমার চার ছেলে। ছেলেরা মাছ শিকার করে জীবিকা নির্বাহ করে। আমাকে খাবার দেবে কেমনে। তাদের সংসার চালানো দায়।’ এ জন্য ভিক্ষা করে দুমুঠো ভাতের ব্যবস্থা করেন। তাঁর প্রশ্ন, আর কত বয়স হলে বয়স্ক ভাতা পাবেন?

এ ব্যাপারে আলোকদিয়া ইউপি সদস্য মোস্তফা বলেন, ‘শাহাতন নামের ওই নারী কার্ড পাওয়ার জন্য আমার কাছে আসেনি।’

চেয়ারম্যান আবু সাইদ তালুকদার এ প্রতিবেদককে বলেন, ‘সে (শাহাতন) আমার কাছে আসেনি। তাঁকে আমার কাছে পাঠিয়ে দেন।’



মন্তব্য