kalerkantho


বদরগঞ্জে সায়েদা হত্যা

আসামিরাই বিচার চায়!

আঞ্চলিক প্রতিনিধি, রংপুর   

৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



রংপুরের বদরগঞ্জে আলোচিত সায়েদা বেগম হত্যার ঘটনা ভিন্ন খাতে নেওয়ার অপচেষ্টা চালাচ্ছে আসামিরা। এ লক্ষ্যে মামলার আসামিরা মারামারির ভুয়া ভিডিওচিত্র প্রকাশ করেছে। এমনকি তারা নিজেরাই সায়েদার বিচার চেয়ে পোস্টার ছেপে মানববন্ধনও করেছে। এসব অভিযোগ জানিয়ে আসামিদের দ্রুত গ্রেপ্তারের দাবিতে গতকাল রবিবার দুপুরে নিহতের ভাতিজা বদরগঞ্জ প্রেস ক্লাব কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছেন।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে মমিনুল ইসলাম বলেন, ‘আমার ফুপু হত্যার ঘটনায় আসামিদের গ্রেপ্তারে পুলিশের কোনো তৎপরতা নেই। আসামিরা প্রকাশ্যেই ঘুরে বেড়াচ্ছে। ঘটনাটি ভিন্ন খাতে নেওয়ার জন্য আসামিরা পুরনো একটি ঘটনার ভিডিওচিত্র পুলিশকে দিয়ে নিজেরা মামলা থেকে রেহাই পেতে অপচেষ্টা চালাচ্ছে। শুধু তাই নয়, মূল আসামিরা আমিসহ আমার পরিবারের বিরুদ্ধে পোস্টার, লিফলেট ছাপিয়ে উল্টো বিচার দাবি করছে। সম্প্রতি বদরগঞ্জ পৌর শহরে আমার ফুপু সায়েদা হত্যার বিচার চেয়ে মানববন্ধনও করেছে।’

মমিনুল ইসলাম আরো বলেন, ‘আসামিরা প্রকাশ্যে আমাকে ও আমার পরিবারের সদস্যদের প্রাণনাশের হুমকি দিচ্ছে। নিরাপত্তা চেয়ে আমি বদরগঞ্জ থানায় পাঁচটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছি। কিন্তু পুলিশ তাদের গ্রেপ্তার করছে না।’ সংবাদ সম্মেলনে সায়েদা বেগমের ছেলে সাইদুল ইসলাম, তাঁর স্ত্রী লাইলী বেগম, নাতি হামিদুল হক, ভাই অহিদুল হক, ছোট বোন জাহেদা ও রসেনা বেগমসহ প্রায় ৩০ জন স্বজন উপস্থিত ছিলেন। ২০১৭ সালের ১৫ অক্টোবর রংপুরের বদরগঞ্জ উপজেলার লোহানীপাড়া ইউনিয়নের কাঁচাবাড়ী বানিয়াপাড়া গ্রামে জমি নিয়ে বিরোধের জেরে সায়েদা নামের (৫৭) ওই গৃহবধূকে কুপিয়ে জখম করা হয়। পরে হাসপাতালে নেওয়ার পথে তিনি মারা যান। এ ঘটনায় এলাকার ইউনুছ, তাজকুল ও মতিয়াসহ ২২ জনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা করেন সায়েদার ভাতিজা মমিনুল ইসলাম।



মন্তব্য