kalerkantho


গফরগাঁও প্রাণিসম্পদ উন্নয়ন কেন্দ্র

অর্থ ছাড়া মিলছে না চিকিৎসা

গফরগাঁও (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি   

২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



ময়মনসিংহের গফরগাঁও উপজেলা প্রাণিসম্পদ উন্নয়নকেন্দ্রে টাকা ছাড়া কোনো চিকিৎসা পাওয়া যায় না বলে অভিযোগ উঠেছে। উপজেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে আসা ভুক্তভোগী লোকজন এ অভিযোগ করে।

পৌর শহরের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের ব্যবসায়ী আলাল উদ্দিন বলেন, ‘আমার গাভিটি নিয়ে প্রাণিসম্পদ অফিসে গিয়েছিলাম। টাকা ছাড়া তারা গাভিটি ছুঁয়েও দেখেনি। পরে ১০০ টাকা দেওয়ার পর চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।’

কৃষক আনোয়ার হোসেন বলেন, ‘এই পশু হাসপাতালে সরকারি কোনো ওষুধ দেওয়া হয় না। স্লিপ দিয়ে ফার্মেসি থেকে ওষুধ কিনে আনতে বলেন। গাভির গর্ভধারণের জন্য সরকার নির্ধারিত ৩০ টাকা ফি হলেও এখানে ২০০-৫০০ টাকা নেওয়া হয়।’

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, উপজেলার একমাত্র পশু চিকিৎসাকেন্দ্রটি নানা অনিয়ম-দুর্নীতিতে ভরা। প্রত্যন্ত এলাকা থেকে লোকজন রোগাক্রান্ত হাঁস-মুরগি, গরু-ছাগল নিয়ে সকালবেলা এলেও ডাক্তাররা আসেন ১১-১২টায়। আবার রোগাক্রান্ত কোনো গরু-ছাগল চিকিৎসাকেন্দ্রে আনা সম্ভব না হলে খবর দিলেও ডাক্তার যান না। অভিযোগ উঠেছে প্রাণিসম্পদ অফিসের এক শ্রেণির কর্মকর্তা-কর্মচারী ওষুধ কম্পানির প্রতিনিধিদের সঙ্গে চুক্তি করে লোকজনকে বাহির থেকে উচ্চ মূল্যে ওষুধ কিনতে বাধ্য করছেন। তা ছাড়া উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. ওয়াহেদুল ইসলাম ঠিকমতো অফিস করেন না। অফিসে সরকার নির্ধারিত ফিয়ের দুটি মূল্যতালিকা টানানো থাকার কথা। কিন্তু এখানে শুধু হাঁস-মুরগির চিকিৎসার মূল্য তালিকা টানানো রয়েছে। গরু-ছাগলের বিষয়টি উল্লেখ নেই। ফলে চিকিৎসাকেন্দ্রে আগত লোকজনের কাছ থেকে ইচ্ছেমতো টাকা আদায় করা হচ্ছে।

অতিরিক্ত টাকা নিয়ে চিকিৎসা দেওয়ার ব্যাপারে জানতে চাইলে উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. ওয়াহেদুল ইসলাম মুঠোফোনে বলেন, ‘এমন হওয়ার কথা নয়। বিষয়টি আমি দেখব।’



মন্তব্য