kalerkantho


জয়দেবপুর-পুবাইল সড়ক

কাদায় ফাঁসছে গাড়ির চাকা

নিজস্ব প্রতিবেদক, গাজীপুর   

১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



গাজীপুর মহানগরীর জয়দেবপুর-পুবাইল সড়কটি টঙ্গী-ঘোড়াশাল-সিলেট আঞ্চলিক মহাসড়কে গিয়ে মিশেছে। এ সড়ক দিয়ে প্রতিদিন অসংখ্য যানবাহন চলাচল করছে। অথচ মেরামতের ছয় মাস না যেতেই সড়কের অবস্থা বেহাল হয়ে পড়েছে।

পুবাইল বাজার এলাকার বাসিন্দা আইয়ুবুর রহমান জানান, ভাদুনের নাগপাড়া, ভাদুন বাজার, ডেমরপাড়া, পুবাইল রেলগেটসংলগ্ন বঙ্গ বিল্ডিং ম্যাটেরিয়ালস কারখানার সামনের অংশের অবস্থা অত্যন্ত শোচনীয়। এসব স্থানে কার্পেটিং, ইট-খোয়া ও মাটি উঠে বড় বড় হয়ে গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। বৃষ্টির পানি জমে কাদাপানিতে একাকার পুরো সড়ক। অনেক সময় হালকা যানবাহনও কাদায় ফেঁসে যাচ্ছে। ছোট ছোট যানবাহন চলতে পারছে না বলে যাত্রীদের দুর্ভোগ বাড়ছে।

পুবাইল রেলস্টেশন এলাকার ব্যবসায়ী কাজী মো. শহিদ জানান, দীর্ঘদিন ভেঙে বেহাল থাকার পর গত কয়েক মাস আগে সড়কটি সংস্কার করে সিটি করপোরেশন। কিন্তু ঠিকাদার নিম্নমানের কাজ করায় সাত-আট মাস না যেতেই সড়কটি আবারও ভেঙে চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। মেরামতকাজ চলার সময় নিম্নমানের ইট ব্যবহারসহ মান অনুযায়ী কাজ না হওয়ায় এলাকার মানুষ সিটি করপোরেশনে অভিযোগ করেছিল। ওই সময় সিটি করপোরেশন থেকে পদক্ষেপ নিলে এমনটা হতো না। মান অনুযায়ী কাজ না করে অর্থ আত্মসাতের কারণেই সড়কটি দ্রুত ভেঙে গেছে। অথচ পুবাইল সড়কটি গাজীপুর মহানগরীর গুরুত্বপূর্ণ সড়কগুলোর মধ্যে একটি। কালীগঞ্জ উপজেলা ও মহানগরীর পুবাইল এলাকার মানুষের গাজীপুর শহরে প্রবেশের একমাত্র পথ এটি। প্রতিদিন অসংখ্য যানবাহন এ সড়ক দিয়ে যাতায়াত করে।

পুবাইল কলেজের ছাত্রী মোশরেফা আক্তার জানান, সড়ক ভেঙে যাওয়ায় ইজি বাইক, রিকশা, টেম্পোর মতো যানবাহন ঠিকমতো চলতে পারছে না। ঝুঁকি নিয়ে তাঁদের যাতায়াত করতে হচ্ছে। এক সপ্তাহ আগে গর্তে রিকশা উল্টে তাঁর এক সহপাঠীর হাত ভেঙে গেছে।

গত বুধবার ভাদুনের নাগপাড়া এলাকায় গিয়ে দেখা গেছে, রেজা ভিলার সামনের একটি গর্তে মালবোঝাই ট্রাক ফেঁসে গিয়ে বন্ধ হয়ে আছে সড়ক। শ্রমিকরা বালি ফেলে ট্রাকটি উঠানোর চেষ্টা করছে। এ সময় চালক এয়াকুব মিয়া বলেন, ‘সড়কটির অবস্থা অত্যন্ত নাজুক। এ কারণে প্রায়ই ট্রাক গর্তে আটকে যায়। এতে তাদের সময় ও অর্থ দুই দিক থেকেই ক্ষতি হয়।’

গাজীপুর সিটি করপোরেশনের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মো. আকবর হোসেন বলেন, ‘এ সড়ক দিয়ে প্রতিদিন অসংখ্য ভারী যানবাহন চলাচল করে। এ কারণে সড়কটি দ্রুত ভেঙে গেছে। ইট-খোয়া ফেলে সড়কটি সচল রাখা হচ্ছে। দ্রুত সড়কটি মেরামতের উদ্যোগ নেওয়া হবে।’



মন্তব্য