kalerkantho


টঙ্গীতে ব্যাংক কর্মকর্তাকে পিটিয়ে আহত

নিজস্ব প্রতিবেদক, গাজীপুর   

২৩ জুলাই, ২০১৮ ০০:০০



গাজীপুরে টঙ্গীর সাতাইশ এলাকায় সোনালী ব্যাংকের এক কর্মকর্তাকে পিটিয়ে আহত করার অভিযোগে দুই পুলিশ সদস্যকে জেলা পুলিশ লাইনে প্রত্যাহার করা হয়েছে। প্রত্যাহারকৃত পুলিশ সদস্যরা হলেন গাজীপুর ট্রাফিক বিভাগের সার্জেট মো. ফিরোজ ও কনস্টেবল শ্যামল দত্ত।

আহত ব্যাংক কর্মকর্তা মো. আমির হোসেন (৪৫) টঙ্গীর সাতাইশ ব্যাংকপাড়া এলাকার বাসিন্দা এবং সোনালী ব্যাংকের জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় শাখার  সিনিয়র অফিসার।

জানা গেছে, ব্যাংক কর্মকর্তা আমির হোসেন রবিবার সকাল ৯টার দিকে বাসা থেকে বের হয়ে রিকশা দিয়ে ব্যাংকের উদ্দেশে রওনা করেন। ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের সাতাইশ রোডের মাথায় পৌঁছালে কর্তব্যরত সার্জেট মো. ফিরোজ ও কনস্টেবল শ্যামল দত্ত তাঁর রিকশার গতিরোধ করেন। তাঁরা রিকশাটি যেতে বাধা দিলে এ নিয়ে রিকশাচালক এবং দুই পুলিশ সদস্যের মধ্যে বাগিবতণ্ডা বাধে। এক পর্যায়ে পুলিশ রিকশাটি আটক করে।

এ সময় রিকশাযাত্রী আমির হোসেন ভাড়া দিয়ে নেমে রিকশাটি ছেড়ে দিতে বলায় দুই পুলিশ সদস্য সার্জেট মো. ফিরোজ ও কনস্টেবল শ্যামল দত্ত তাঁকে অকথ্য ভাষায় গালাগাল শুরু করেন এবং উত্তেজিত হয়ে তাঁকে লাঠি দিয়ে বেধম পিটুনি দেন। এতে তাঁর ডান হাতের মধ্যম আঙুল ফেটে রক্ত ঝরতে থাকে।

এ দৃশ্য দেখে আশপাশের লোকজন ছুটে আসে এবং ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে দুই পুলিশ সদস্যকে অবরুদ্ধ করে রাখে। খবর পেয়ে টঙ্গী থানার পুলিশ ও অন্য ট্রাফিক পুলিশরা এগিয়ে গিয়ে দুই পুলিশ সদস্যকে উদ্ধার করে। একই সঙ্গে আহত ব্যাংক কর্মকর্তাকে উদ্ধার করে টঙ্গী সরকারি হাসপাতালে চিকিত্সার জন্য ভর্তি করা হয়। দুই পুলিশ সদস্যের অসদাচরণের কারণে তাঁদের তাত্ক্ষণিক প্রত্যাহার করে গাজীপুর পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা হয়েছে।

ব্যাংক কর্মকর্তা আমির হোসেন সাংবাদিকদের জানান, হঠাৎ করে দুই পুলিশ সদস্য উত্তেজিত হয়ে তাঁকে এলোপাতাড়ি মারধর করেন। এতে তাঁর জামাকাপড় ছিঁড়ে গেছে।

গাজীপুর ট্রাফিক বিভাগের সহকারী পুলিশ সুপার মো. সালেহ উদ্দিন আহমেদ বলেন, ব্যাংক কর্মকর্তা রিকশা নিয়ে উল্টো পথে চলতে গেলে কনস্টেবল শ্যামল তাতে বাধা দেন। এ নিয়ে শ্যামলের সঙ্গে প্রথমে তাঁর কথা-কাটাকাটি ও পরে হাতাহাতি শুরু হলে কর্তব্যরত সার্জেন্ট ফিরোজ এগিয়ে যান। কিন্তু পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ না করে তিনিও বিবাদে জড়িয়ে পড়েন। সার্জেন্ট ফিরোজ ও কনস্টেবল শ্যামল দত্তকে তাত্ক্ষণিক প্রত্যাহার করে গাজীপুর পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা হয়েছে।

 



মন্তব্য