kalerkantho


মামুনের খাল পুনরুদ্ধার, আমিরের মাদকমুক্তের ইশতেহার

বরিশাল অফিস   

২২ জুলাই, ২০১৮ ০০:০০



মামুনের খাল পুনরুদ্ধার, আমিরের মাদকমুক্তের ইশতেহার

বরিশাল সিটি করপোরেশনের ১ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর সাইদুল হাসান মামুন। সিটি করপোরেশন নির্বাচনে তিনি এবার লাটিম প্রতীক নিয়ে লড়বেন। তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী রয়েছেন আওয়ামী লীগ সমর্থিত ঠেলাগাড়ি প্রতীকের মো. আমির হোসেন বিশ্বাস।

মামুনের দাবি, পাঁচ বছর কাউন্সিলর থাকাকালে তিনি এলাকার উন্নয়নে গতিশীলতা ফিরিয়ে এনেছেন। এবার নির্বাচিত হলে তিনি তাঁর ওয়ার্ডের জেল খাল ও রায়ের খাল উদ্ধার করে খননকাজ শুরু করবেন। তাহলে ওয়ার্ডের জলাবদ্ধতা স্থায়ীভাবে নিরসন করা যাবে। আর আমির বিশ্বাসের পরিকল্পনা, মাদক ও সন্ত্রাসমুক্ত ওয়ার্ড নির্মাণে কাজ করা। সে লক্ষ্যে নির্বাচনে জয়ী হতে পদচারণা চালাচ্ছেন এই দুই কাউন্সিলর প্রার্থী।

মামুন জানান, ১ নম্বর ওয়ার্ডের মানুষের সঙ্গে তিনি ওতপ্রোতভাবে জড়িত। তাঁরা তাঁকে কাউন্সিলর নির্বাচিত করেছেন। আর তিনিও আশানুরূপ কাজ করেছেন। তিনি বলেন, ১ নম্বর ওয়ার্ডের প্রত্যেকটি সড়ক তাঁর হাতে করা। একই সঙ্গে স্কুলে ভবন, মাদরাসার ভবন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সুষ্ঠু পরিচালনা করেছেন। প্রশাসনের সহযোগিতায় এলাকা মাদকমুক্ত করার চেষ্টা করেছেন। এ ছাড়া পাঁচ বছরে তিনি সুপেয় পানির ব্যবস্থা করেছেন। নালা নির্মাণ করেছেন। যে প্রকল্পগুলো চলমান, তা সমাপ্ত করার জন্য তিনি ওয়ার্ডবাসীর কাছে ফের ভোট চেয়েছেন।

এর বাইরে তিনি ওয়ার্ডে মায়েদের জন্য ডে কেয়ার সেন্টার, কর্মজীবী নারীদের আবাসন ও মহিলা টয়লেট নির্মাণ, শিশু ও নারীদের জন্য বিনোদনকেন্দ্র, শিক্ষার্থীদের লেখাপড়াসহ সব বয়সের মানুষের জন্য লাইব্রেরি, এলাকার বয়োজ্যেষ্ঠদের নিয়ে পরিকল্পনার মাধ্যমে সব কাজ বাস্তবায়ন করে একটি আদর্শ ওয়ার্ড গড়ে তুলবেন।

আমির জানান, আওয়ামী লীগ সরকার বরিশালের ব্যাপক উন্নয়ন করেছে। আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহ্র জন্য বরিশালে তাঁর সুনজর রয়েছে। আর সাদিক আব্দুল্লাহ মেয়র হলে উন্নয়নের গতিশীলতা ফিরে আসবে। তিনি বলেন, ‘১ নম্বর ওয়ার্ডের সড়কগুলো বেহাল। নিরাপত্তাব্যবস্থা না থাকায় মাদক ব্যবসায়ীরা মাথাচাড়া দিয়ে উঠতে শুরু করেছে। আমি নির্বাচিত হয়ে প্রথমেই মাদকমুক্ত ওয়ার্ড গড়ব। এরপর সন্ত্রাস আর চাঁদাবাজদের বিতাড়িত করা হবে।’ তিনি নির্বাচিত হলে নারীদের জন্য সেলাই প্রশিক্ষণ, চিকিৎসাকেন্দ্র স্থাপন এবং বিনা মূল্যে চিকিৎসাসেবা দেবেন।



মন্তব্য