kalerkantho


কেন্দুয়ায় নিখোঁজ কলেজ ছাত্রের লাশ উদ্ধার

আঞ্চলিক প্রতিনিধি, ময়মনসিংহ   

২১ জুলাই, ২০১৮ ০০:০০



কেন্দুয়ায় নিখোঁজ কলেজ ছাত্রের লাশ উদ্ধার

জুয়েল মিয়া

নেত্রকোনার কেন্দুয়া উপজেলার সান্দিকোনা ইউনিয়নের ডাউকি গ্রামের একটি পরিত্যক্ত স্থান থেকে জুয়েল মিয়া (২০) নামের এক কলেজছাত্রের ক্ষতবিক্ষত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহত কলেজছাত্র ওই গ্রামের সাবিজ মিয়ার ছেলে। তিনি কিশোরগঞ্জ অলিনেওয়াজ খান কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্র ছিলেন। এ ঘটনায় পুলিশ নিহত জুয়েলের তিন বন্ধু হলুদ মিয়া, শাহিন ও রাসেলকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নিয়ে গেছে।

স্থানীয় ও নিহতের পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, গত বৃহস্পতিবার রাত ১০টার দিকে জুয়েল নিজের বসতঘর থেকে বের হয়ে আর বাড়ি ফেরেননি। গতকাল শুক্রবার ভোরে বাড়ির অদূরে একটি পরিত্যক্ত স্থানে তাঁর লাশ পড়ে থাকতে দেখে পুলিশকে খবর দেয় স্থানীয় লোকজন। পরে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে।

নিহতের বাবা আজিজ মিয়া জানান, বেশ কিছু দিন ধরে এক মাদরাসাছাত্রীকে উত্ত্যক্ত করত পাশের বাড়ির খুরশিদ মিয়ার ছেলে খাইরুল ইসলাম (২৮)। প্রতিবাদ করেও ওই ছাত্রী খাইরুলের হাত থেকে রেহাই পায়নি। এ অবস্থা দেখে তাঁর ছেলে জুয়েলও প্রতিবাদ করে। এ নিয়ে দুই মাস আগে খাইরুল জুয়েলকে হুমকি দেয়। এর দুই দিন পর খাইরুলের দুই ভাই সুনু মিয়া ও আলম মিয়া জুয়েলকে একা পেয়ে মারার চেষ্টা করে। জুয়েলের ভগ্নিপতি আবুল হোসেন জানান, তাঁদের ধারণা মাদরাসাছাত্রীকে উত্ত্যক্তে বাধা দেওয়ার কারণেই খাইরুল ক্ষিপ্ত হয়ে এই হত্যাকাণ্ড ঘটাতে পারে।

কেন্দুয়া থানার ওসি ইমারত হোসেন গাজী বলেন, ‘এ ঘটনায় খাইরুলসহ তার দুই ভাই সুনু ও আলমকে অভিযুক্ত করে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন নিহত জুয়েলের বাবা। ঘটনার পর থেকে ওই তিনজন পলাতক।’



মন্তব্য