kalerkantho


গুরুদাসপুরে ৪০ দিনের কর্মসূচির টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

নাটোর প্রতিনিধি   

১৭ জুলাই, ২০১৮ ০০:০০



নাটোরের গুরুদাসপুর উপজেলার বিয়াঘাট ইউনিয়নের ৪০ দিনের কর্মসূচির কাজের টাকা আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে। ওই কাজের সভাপতি ৫ নম্বর ওয়ার্ডের সংরক্ষিত মহিলা সদস্য আনোয়ারা খাতুন এ টাকা আত্মসাৎ করেছেন বলে শ্রমিকরা জানিয়েছে।

এ বিষয়ে লিখিত অভিযোগ দিতে গত রবিবার সকালে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার অফিসে আসে শ্রমিকরা। তবে প্রকল্প কর্মকর্তা অফিসে না থাকায় বাড়ি ফিরে যায় তারা।

শ্রমিকরা অভিযোগ করে বলে, কাজে নিয়োগ দেওয়ার জন্য প্রথমে জনপ্রতি এক হাজার টাকা করে নেওয়া হয়েছে। সুতিজালের বাঁশ কাটার বিলসহ সাত দিনের কাজের বিল দেওয়া হয়নি। এ ছাড়া দুই মেয়াদের কাজের সঞ্চয়ের টাকা কম দেওয়া হয়েছে।

বিলহরীবাড়ী গ্রামের মো. শহিদুলের স্ত্রী শেফালী বলেন, ‘চেয়ারম্যানের কাছ থেকে প্রজেক্ট নিয়ে আসার কথা বলে আমার কাছ থেকে আনোয়ারা মেম্বার চার হাজার টাকা নিয়েছেন। পরে দেখি কর্মসূচির কাজ। ফাঁকি দিয়ে আমার কাছ থেকে টাকা নিয়েছেন তিনি। এখন টাকা চাইতে গেলেই উল্টাপাল্টা কথা বলছেন।’

ওয়াজেদ আলী নামের এক শ্রমিক বলেন, ‘দুইবারের কর্মসূচির কাজ মিলে সঞ্চয়ের দুই হাজার টাকা পাব। কিন্তু আমাকে দেওয়া হয়েছে মাত্র এক হাজার ২৫০ টাকা।’

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ওই কাজের সভাপতি আনোয়ারা খাতুন বলেন, ‘আমাকে ফাঁসানোর জন্য তারা মিথ্যা কথা বলছে। আমি সব সময় ঠিকঠাক কাজ করছি। তা ছাড়া সঞ্চয়ের টাকা প্রথমবারের সভাপতি কালাম হোসেন কম দিয়েছেন।’

এ বিষয়ে বিয়াঘাট ইউপি চেয়ারম্যান প্রভাষক মোজাম্মেল হকের মুঠোফোন বন্ধ থাকায় বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

তবে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা আব্দুল হান্নান বলেন, ‘আমি নাটোরে অফিসের কাজে ছিলাম। এ জন্য শ্রমিকদের সঙ্গে কথা হয়নি। তবে শ্রমিকদের সঞ্চয়ের টাকা কম দেওয়ার বিষয়টি খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’



মন্তব্য