kalerkantho


পাথরঘাটা

প্রসূতির মৃত্যুর পর ক্লিনিক ঘেরাও

পাথরঘাটা (বরগুনা) প্রতিনিধি   

১৫ জুলাই, ২০১৮ ০০:০০



বরগুনার পাথরঘাটায় একটি বেসরকারি ক্লিনিকে ভুল চিকিৎসায় অস্ত্রোপচারের সময় প্রসূতির মৃত্যুর অভিযোগ করেছে স্বজনরা। গত শুক্রবার দিবাগত রাত ২টার দিকে পাথরঘাটা সৌদিপ্রবাসী ক্লিনিক অ্যান্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারে এ ঘটনা ঘটে। মৃত্যুর খবর শুনে রোগীর আত্মীয়-স্বজন ও এলাকাবাসী ক্লিনিকটি ঘেরাও করে। ক্লিনিক কর্তৃপক্ষ ও চিকিৎসক ঘটনার পর থেকেই পলাতক।

মৃতের নাম মোসা. সালমা বেগম (২৫)। তিনি বরগুনার তালতলী উপজেলার শিকারিপাড়া গ্রামের মো. মনির হোসেনের স্ত্রী ও পাথরঘাটা উপজেলার বড় পাথরঘাটা গ্রামের মো. হানিফার মেয়ে।

ক্লিনিকটির এক সেবিকা বলেন, তিনি ডা. রুনা রহমানকে ১০-১৫ বার প্রসূতিকে অজ্ঞান করার ইনজেকশন প্রয়োগ করতে দেখেছেন। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক আনোয়ার উল্যাহ জানান, রুনা রহমান সার্জারির চিকিৎসক নন। অবেদনবিদ (অ্যানেসথেশিয়া) হিসেবে তাঁর সার্টিফিকেট নেই। রুনা বরিশালে প্র্যাকটিস করে থাকেন।

উপজেলার কালমেঘা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও পাথরঘাটা পৌর মেয়র ক্লিনিকটিতে গিয়ে বিষয়টি মীমাংসার কথা বলে মরদেহ বাড়িতে পাঠিয়ে দেন।

পাথরঘাটা পৌরসভার মেয়র মো. আনোয়ার হোসেন গতকাল শনিবার কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘উভয় পক্ষকে নিয়ে ফয়সালা করে দেওয়া হবে।’

পাথরঘাটা থানার ওসি মোল্লা মো. খবীর আহমেদ বলেন, ‘লিখিত অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’



মন্তব্য