kalerkantho


ফরিদপুরে ইফতারকেন্দ্রিক নির্বাচনী রাজনীতি

নিজস্ব প্রতিবেদক, ফরিদপুর   

১৫ জুন, ২০১৮ ০০:০০



একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে ফরিদপুরে রমজানে সক্রিয় ইফতার মাহফিলকেন্দ্রিক রাজনীতি। প্রায় প্রতিদিনই জেলা শহর থেকে ইউনিয়ন এমনকি ওয়ার্ড পর্যায়ে ইফতার মাহফিলের আয়োজন করা হচ্ছে। এই তৎপরতা বেড়েছে ঈদ কাছে এসে পড়ায়। ফরিদপুরের চারটি সংসদীয় আসনেই ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ, বিএনপিসহ অন্য দলের সম্ভাব্য প্রার্থীরা ভোটের মাঠে নেমে পড়েছেন। অনুষ্ঠানে তাঁরা ভোট চাইছেন।

ইফতারকেন্দ্রিক রাজনীতিতে এগিয়ে আছেন আওয়ামী লীগের মন্ত্রী, সংসদ সদস্য (এমপি) ও সম্ভাব্য প্রার্থীরা। তাঁরা বলছেন, শেখ হাসিনার দূরদর্শী ও সফল নেতৃত্বের কারণে দেশ বিশ্বে উন্নয়নের রোল মডেল হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছে। উন্নয়নের ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখতে নৌকা মার্কায় ভোট দিতে হবে।

ব্যতিক্রম ছিল ফরিদপুর-৩ (সদর) আসনের সংসদ সদস্য স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেনের ব্যক্তিগত উদ্যোগে শুধু নারীদের নিয়ে ইফতার মাহফিলের আয়োজন। গত ৮ জুন (শুক্রবার) ফরিদপুর শহরের বদরপুরে নিজ বাড়ি আফসানা মঞ্জিল চত্বরে সদর উপজেলার ১২টি ইউনিয়নের দলীয় নেতাকর্মী, জনপ্রতিনিধিসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার প্রায় ১২ হাজার নারী এতে অংশ নেয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন খন্দকার মোশাররফ হোসেন।

প্রধান অতিথি বক্তব্যে বলেন, ‘আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকলেই দেশ এগিয়ে যায়। দুই মেয়াদে ক্ষমতায় থেকে বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা দেশের সার্বিক উন্নয়নে বিশ্বে রোল মডেল হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছেন। দেশের এমন কোনো স্থান নেই যেখানে উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি। দেশ উন্নয়নের মহাসড়কে ছুটছে। শেখ হাসিনার সফল নেতৃত্বে উন্নয়নের এ ধারা অব্যাহত রাখতে আবার নৌকা মার্কায় ভোট দিন।’ পরে গত রবিবার একই স্থানে দলীয় নেতাকর্মীসহ সর্বস্তরের মানুষের জন্য পৃথক ইফতার মাহফিলের আয়োজন করেন খন্দকার মোশাররফ। অনুষ্ঠানে সদর উপজেলার ১২টি ইউনিয়নের প্রায় ১৫ হাজার মানুষ অংশ নেয়। এ ছাড়া আওয়ামী লীগের নেতা কাজী জাফরউল্যাহ, সংসদ সদস্য মজিবুর রহমান নিক্সন, সংসদ সদস্য ও কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. আব্দুর রহমান, সাবেক সংসদ সদস্য কাজী সিরাজুল ইসলাম, মো. আরিফুর রহমান দোলনসহ বিভিন্ন আসনে মনোনয়নপ্রত্যাশীরা ইফতার মাহফিলকেন্দ্রিক রাজনীতিতে সক্রিয়।

বিএনপির কেন্দ্রীয় সহসভাপতি ও সাবেক মন্ত্রী চৌধুরী কামাল ইবনে ইউসুফ, শাহ মো. আবু জাফর, শামা ওবায়েদ ইসলাম রিঙ্কু, জহিরুল হক শাহজাদা মিয়া, সৈয়দ জুলফিকার হোসেন জুয়েল, মাহবুবুল হাসান পিঙ্কুসহ বিভিন্ন আসনে সম্ভাব্য প্রার্থীরা পুরো রমজান মাসে মাঠে সক্রিয় রয়েছেন। তাঁরা বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে মিথ্যা মামলায় সাজা দিয়ে বিনা চিকিৎসায় কারাগারে আটক রাখার অভিযোগ করেন। নেতারা বলেন, এ সরকার যেন আর ভোটারবিহীন নির্বাচন না করতে পারে, সে জন্য মানুষকে সতর্ক থাকতে হবে। সরকারের অগণতান্ত্রিক আচরণের প্রতিবাদ করতে এবং সাধারণ মানুষের ভোটাধিকার ফিরে পেতে বিএনপিকে শক্তিশালী করে গড়ে তুলতে হবে। খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে করা মামলা প্রত্যাহারসহ গণতন্ত্র ও ভোটাধিকার রক্ষা করতে, এ সরকারের হাত থেকে রেহাই পেতে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে ধানের শীষে ভোট দিতে হবে।

এ ছাড়া জাকের পার্টি, সিপিবিসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের সম্ভাব্য প্রার্থীরা মাঠে থেকে আগামী নির্বাচনে ভোট চাইছেন।



মন্তব্য