kalerkantho


কিশোরগঞ্জে এলাকাবাসীর মানববন্ধন নির্যাতিত পরিবারের পক্ষে

কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি ও আঞ্চলিক প্রতিনিধি (ময়মনসিংহ)   

১৯ মার্চ, ২০১৮ ০০:০০



জমির মালিকানা নিয়ে বিরোধের জেরে কিশোরগঞ্জের হোসেনপুরে নির্যাতনের শিকার একটি দরিদ্র পরিবারের পক্ষে মানববন্ধন করেছে এলাকাবাসী। গতকাল রবিবার উপজেলার পাঁচ গ্রামের মানুষ মানববন্ধন করে অভিযুক্তদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করে।

জানা গেছে, গত ৩ মার্চ উপজেলার গোবিন্দপুর ইউনিয়নের সৈয়দপুর গ্রামের দরিদ্র বৃদ্ধ হামিদা বেগমকে প্রতিপক্ষের লোকজন কুপিয়ে জখম করে। এ সময় তাঁকে রক্ষায় এগিয়ে গেলে প্রথমে প্রতিবেশী বৃদ্ধ রাজিয়া বেগম আহত হন। পরে আরো আহত হন হামিদার দুই ছেলে মো. আব্বাস উদ্দিন ও ইসাম উদ্দিন এবং হামিদার দুই পুত্রবধূ লাকী আক্তার ও লিপি আক্তার। এ সময় বৃদ্ধার ঘরটিও গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়। তার ওপর হামলাকারীদের পক্ষে মো. বরকতউল্লাহ বাদী হয়ে হামলার শিকার নারী-পুরুষ আটজনকে অভিযুক্ত করে হোসেনপুর থানায় মামলা করেন। ওই মামলায় কারাগারে যান সেদিনের ঘটনায় অনুপস্থিত মো. শহীদ মিয়া নামের এক শারীরিক প্রতিবন্ধী।

এ ঘটনার প্রতিবাদে এলাকার লোকজন গতকাল সকালে স্থানীয় ইউপি কার্যালয়ের সামনের সড়কে মানববন্ধন করে। মানববন্ধনে অংশ নেওয়া সৈয়দপুর গ্রামের মো. আবদুস সাত্তার বলেন, ১৯ শতক জমি যৌথভাবে কেনা হলেও জহুর আলীর উত্তরাধিকারীরা হামিদা বেগমের অংশও দখল করে নেয়। স্থানীয়ভাবে সালিসে হামিদার মালিকানা প্রতিষ্ঠিত হলেও ওই পক্ষ জমির দখল ছাড়তে রাজি নয়। এ নিয়ে হামিদা আদালতে মামলা করেন। সম্প্রতি আদালত থেকে হামিদার পক্ষে রায় গেলে প্রতিপক্ষ তাদের ওপর ওই হামলা চালায়।

গোবিন্দপুর ইউপি চেয়ারম্যান মো. শফিকুল ইসলাম ভূঁইয়া বলেন, হামলার শিকার পরিবারটি আসলেই অসহায়। তারা হামলার শিকার হয়েও বিচার পাচ্ছে না। উল্টো মামলার আসামি হয়েছে, যা সত্যিই দুঃখজনক।

 


মন্তব্য