kalerkantho


শেরপুরে পোকা দমনে পার্চিং উৎসব

শেরপুর প্রতিনিধি   

২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



শেরপুরে বোরো আবাদে ফসলের ক্ষতিকর পোকা দমনে কৃষকদের উদ্বুদ্ধ করতে পার্চিং উৎসব করা হয়েছে। গতকাল রবিবার দুপুরে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উদ্যোগে নকলা ও নালিতাবাড়ী উপজেলায় এ উৎসব অনুষ্ঠিত হয়। নকলা উপজেলার পাইশকা এলাকায় কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর ময়মনসিংহ অঞ্চলের অতিরিক্ত পরিচালক কৃষিবিদ আসাদুল্লাহ এ উৎসবের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন। এ সময় উত্তরে গড়েরগাঁও এবং পশ্চিমে নকলা পৌরসভা পর্যন্ত পাঁচ কিলোমিটার এলাকায় আবাদ করা বোরো ধানের ক্ষেতে শত শত কিষান-কিষানি বাঁশ ও গাছের খুঁটি পুঁতে উৎসব পালন করে। এ সময় নকলার পাইশকা বিশ্বরোডের মোড় এলাকায় এ উপলক্ষে আয়োজিত উদ্বুদ্ধকরণ অনুষ্ঠানে উপপরিচালক মো. আশরাফ উদ্দিনের সভাপতিত্বে বক্তব্য দেন প্রধান অতিথি অতিরিক্ত পরিচালক আসাদুল্লাহ, বিশেষ অতিথি পৌর মেয়র হাফিজুর রহমান লিটন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা মোস্তাফিজুর রহমান।

শেরপুর খামারবাড়ির উপপরিচালক মো. আশরাফ উদ্দিন বলেন, পার্চিং হচ্ছে ফসলি জমিতে লম্বা খুঁটি বা বাঁশ পুঁতে রাখা, যাতে এসব খুঁটিতে সহজে পাখি বসতে পারে। এতে ফসলের ক্ষতিকর পোকার মথ বা কীড়া খেতে পাখির সুবিধা হয়, সঙ্গে জৈবিকভাবে পোকা দমন হয়। ফলে বালাইনাশক ব্যবহার করতে হয় না। পরিবেশের ভারসাম্য নষ্ট হয় না। এভাবে জমিতে স্থাপন করা খুঁটি বা ধৈঞ্চার গাছ লাগিয়ে পাখির বসার ব্যবস্থা করে দেওয়াই হচ্ছে পার্চিং। পার্চিং পদ্ধতিতে ধানের জমিতে পোকা দমন এরই মধ্যে বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে।


মন্তব্য