kalerkantho


ময়মনসিংহ পাসপোর্ট অফিস থেকে দুই রোহিঙ্গা আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক, ময়মনসিংহ   

১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



ময়মনসিংহ আঞ্চলিক পাসপোর্ট কার্যালয় থেকে দুই রোহিঙ্গাকে আটক করা হয়েছে। বাংলাদেশি হিসেবে ভুয়া নাম-ঠিকানা ব্যবহার করে গতকাল বুধবার পাসপোর্টের আবেদনপত্র জমা দেওয়ার সময় তাঁদের আটক করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদে তাঁরা নিজেদের মিয়ানমারের নাগরিক বলে স্বীকার করেন।

আটককৃতরা নিজেদের নাম বলেছেন রাজিয়া বেগম ও মোস্তাক আহমেদ। তবে এটা তাঁদের ছদ্মনাম বলে সন্দেহ করেছে পুলিশ। ময়মনসিংহ আঞ্চলিক পাসপোর্ট কার্যালয়ের পুলিশ ব্যারাকের ইনচার্জ এএসআই মো. রাসেল মিয়া জানান, আটক মোস্তাক আহমেদ ও রাজিয়া বেগম চাচা-ভাতিজি পরিচয়ে পাসপোর্টের আবেদন ফরম পূরণ করে কাউন্টারে জমা দেন। রাজিয়ার আবেদন ফরম এবং জন্ম নিবন্ধন সনদে নাম : রাজিয়া বেগম, পিতা : আলী আকবর, গ্রাম : নুরপুর, ডাকঘর : সরারচর, উপজেলা : বাজিতপুর, জেলা : কিশোরগঞ্জ লেখা হয়। কিন্তু তাঁদের কথা শুনে কাউন্টারে কর্তব্যরত কর্মীর সন্দেহ হয়। বিষয়টি সিনিয়র সহকারী পরিচালক নুরুল হুদার নজরে আনা হলে তিনি তাঁদের জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশে সোপর্দ করেন। পুলিশ তাঁদের কোতোয়ালি মডেল থানায় নিয়ে যায়।

নুরুল হুদা বলেন, ওই নারী তাঁর বাড়ি কক্সবাজার এবং মোস্তাক আহমেদ তাঁর বাড়ি কক্সবাজারের রামু থানায় বলে জানিয়েছেন। কিন্তু পরে তাঁরা নিজেদের মিয়ানমারের নাগরিক বলে স্বীকার করেন। রাজিয়া পাঁচ মাস আগে এবং মোস্তাক ২০০৮ সাল থেকে বাংলাদেশে অবস্থান করার কথা জানিয়েছেন।

কোতোয়ালি থানার ওসি মাহমুদুল ইসলাম জানান, রোহিঙ্গা নাগরিক সন্দেহে রাজিয়া বেগম ও মোস্তাক আহমেদ নামে দুইজনকে আটক করে পাসপোর্ট কার্যালয় থেকে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তাঁদের বিষয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।



মন্তব্য