kalerkantho


চালক হত্যা মামলা

গাজীপুরে বাবা ও তিন ছেলেসহ সাতজনের জেল

নিজস্ব প্রতিবেদক, গাজীপুর   

২৩ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



গাজীপুরে বাবা ও তিন ছেলেসহ সাতজনের জেল

গাজীপুরের কালীগঞ্জে ইজি বাইকচালক আব্দুল হামিদকে হত্যার দায়ে বাবা, তিন ছেলেসহ সাতজনকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে তাদের জরিমানা করা হয়েছে।

জেলা দায়রা জজ আদালতের বিচারক এ কে এম এনামুল হক গতকাল সোমবার সকালে এ রায় ঘোষণা করেন।

দণ্ডাদেশপ্রাপ্তরা হলেন উপজেলার বড়নগর গ্রামের মো. আঙ্গুর খান, তাঁর তিন ছেলে সুমন, মো. মাসুম ও মো. রজন এবং একই গ্রামের নজরুল ইসলামের ছেলে মজিবুর রহমান ওরফে মজিব ওরফে মজিবুল হক, আকবর আলী ও তাঁর ছেলে মো. হৃদয়। তাদের মধ্যে মাসুমকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড, পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা ও অনাদায়ে আরো তিন মাসের সশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। আরেকটি ধারায় মাসুমসহ অন্যদের পাঁচ বছর করে সশ্রম কারাদণ্ড, দুই হাজার টাকা করে জরিমানা ও অনাদায়ে আরো এক মাস করে সশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

জেলা আদালতের পরিদর্শক মো. রবিউল ইসলাম জানান, ২০১৫ সালের ৮ মার্চ সকালে উপজেলার চান্দাইয়া গ্রামে যাত্রী ওঠানো নিয়ে ইজি বাইকচালক বড়নগর গ্রামের আব্দুর রহমানের ছেলে আব্দুল হামিদের সঙ্গে আঙ্গুরের মধ্যে কথা-কাটাকাটি ও মারামারি হয়। একপর্যায়ে হামিদকে মেরে ফেলার হুমকি দিয়ে চলে যায় আঙ্গুর।

ঘটনার পর হামিদ কয়েকজনকে নিয়ে বিষয়টি মীমাংসার জন্য গেলে আঙ্গুর তাঁর লোকজন নিয়ে রড ও লাঠিসোঁটা নিয়ে হামিদকে পেটায়। একপর্যায়ে আঙ্গুরের ছেলে মাসুম পেছন থেকে হামিদের মাথার পেছনে আঘাত করে এবং তাঁর সঙ্গে থাকা টাকা ও মোবাইল ফোনসেট ছিনিয়ে নেয়। তিন দিন পর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় হামিদের মৃত্যু হয়।

এ ঘটনায় ১২ মার্চ তাঁর স্ত্রী আউলিয়া বেগম কালীগঞ্জ থানায় মামলা করেন। উপপরিদর্শক (এসআই) তরিকুল ইসলাম তদন্ত শেষে সাতজনকে অভিযুক্ত করে একই বছরের ২২ সেপ্টেম্বর আদালতে অভিযোগপত্র (চার্জশিট) দাখিল করেন। আদালত ১১ জনের সাক্ষ্য শেষে গতকাল উল্লিখিত রায় দেন।


মন্তব্য