kalerkantho


গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচন

সবুজ সংকেত পেয়ে মাঠে জাহাঙ্গীর

নিজস্ব প্রতিবেদক, গাজীপুর   

১৭ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



সবুজ সংকেত পেয়ে মাঠে জাহাঙ্গীর

মো. জাহাঙ্গীর আলম

দলীয় প্রধানের সবুজ সংকেত পেয়ে মাঠে কাজ শুরু করেছেন গাজীপুর সিটি করপোরেশনের (গাসিক) আসন্ন নির্বাচনে মেয়র পদপ্রার্থী অ্যাডভোকেট মো. জাহাঙ্গীর আলম। তিনি মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।

তীব্র শীত উপেক্ষা করে তিনি প্রতিদিন ঘরে ঘরে বর্তমান সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন, জনগণের জন্য নেওয়া কর্মসূচি ও সাফল্য তুলে ধরছেন। এ ছাড়া দলীয় ও সহযোগী সংগঠনের বিভিন্ন ইউনিটের নেতাকর্মীদের সঙ্গে মতবিনিময় করছেন। পাশাপাশি এলাকার জনগুরুত্বপূর্ণ সমস্যা চিহ্নিত করার কাজে হাত দিয়েছেন।

গাজীপুর মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মো. মহিউদ্দিন মহি জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গত বৃহস্পতিবার সবুজ সংকেত দেওয়ার পর শুক্রবার ভোর থেকে ভোটারদের বাড়ি বাড়ি যাচ্ছেন জাহাঙ্গীর। গত পাঁচ দিনে তিনি নগরীর ৩৮, ৩৩, ৫৪ ও ৪৬ নম্বর ওয়ার্ডের কমপক্ষে তিন সহস্রাধিক ভোটারের বাড়ি গিয়ে বিদ্যুৎ, সড়ক-মহাসড়ক, সেতু, স্কুল-কলেজ প্রভৃতি খাতে সরকারের উন্নয়ন কর্মকাণ্ড, ডিজিটাল সেবা, পদ্মা সেতু, দরিদ্র জনগোষ্ঠীর জন্য নেওয়া ভিজিএফ, ভিজিডি, দরিদ্র, বিধবা ও মাতৃত্বকালীন ভাতা, বিনা মূল্যে বই বিতরণ কর্মসূচিসহ সাফল্য তুলে ধরছেন। জাহাঙ্গীর এমনিতে দল-মত-নির্বিশেষে সব শ্রেণির মানুষের কাছে জনপ্রিয়। তিনি যেখানে যাচ্ছেন নগরবাসী তাঁকে বরণ করে নিচ্ছে। বিশেষ করে তরুণ প্রজন্ম ও নারীরা তাঁকে কাছে পেয়ে বেজায় খুশি।

মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. মুনির হোসেন বলেন, জাহাঙ্গীর এক বছর ধরে দল গোছানোর কাজ করছেন। সবুজ সংকেত পাওয়ার পর তাঁর সাংগঠনিক ব্যস্ততা আরো বেড়ে গেছে। কয়েক দিন ধরে তিনি বিভিন্ন ইউনিটের নেতাকর্মীদের সঙ্গে ধারাবাহিক বৈঠক করে চলেছেন। তাঁকে সবুজ সংকেত দেওয়ায় নেতাকর্মীরাও আনন্দিত।

উল্লেখ্য, ২০১৩ সালে গাসিক প্রথম নির্বাচনে মেয়র পদে মনোনয়ন পেয়েছিলেন মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি টঙ্গীর সাবেক মেয়র অ্যাডভোকেট মো. আজমতউল্লা খান। নির্বাচনে আজমতউল্লা এক লাখেরও বেশি ভোটের ব্যবধানে বিএনপির প্রার্থী অধ্যাপক এম এ মান্নানের কাছে হেরে যান।



মন্তব্য