kalerkantho


দুই মালিক সমিতির দ্বন্দ্ব

ঝালকাঠিতে বরিশাল মালিক সমিতির বাস চলছে না

ঝালকাঠি প্রতিনিধি   

৪ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



দুই মালিক সমিতির দ্বন্দ্বের জেরে বরিশালের সঙ্গে বাস চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। বুধবার সকাল ৮টা থেকে ঝালকাঠির রায়াপুর এলাকায় অবস্থান নিয়ে বরিশাল মালিক সমিতির বাস বন্ধ করে দেয় ঝালকাঠি মালিক সমিতি। ফলে বরিশালের সঙ্গে ঝালকাঠি, পিরোজপুর, বাগেরহাট, মহেশপুর ও রূপসা মালিক সমিতির সরাসরি বাস চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে। এতে দুর্ভোগে পড়েছে যাত্রীরা। বরিশাল যেতে যাত্রীদের চার কিলামিটার বিকল্প যানে যাতায়াত করতে হচ্ছে। ঝালকাঠি ও বরিশাল বাস ও মিনিবাস মালিক সমিতির দ্বন্দ্ব নিরসন না হওয়া পর্যন্ত এসব পথে সরাসরি বাস চলাচল বন্ধ থাকবে বলেও ঘোষণা দেয় ঝালকাঠি বাস মালিক সমিতি।

ঝালকাঠি বাসমালিক সমিতির নেতারা জানিয়েছেন, বরিশাল-পটুয়াখালী-বরগুনা-কুয়াকাটা নৌপথে ঝালকাঠি মালিক সমিতির বাস চলাচল করার দাবিতে মঙ্গলবার বিকেলে বরিশালে সমঝোতা বৈঠকের নির্ধারিত তারিখ ছিল। কিন্তু ওই বৈঠকে বলিশাল বাস মালিক সমিতির নেতারা না আসায় সমঝোতা বৈঠক ভেস্তে যায়। ফলে ঝালকাঠিসহ দক্ষিণাঞ্চলের বাস মালিক সমিতির দাবি উপেক্ষিত হলে ঝালকাঠি জেলার সড়কে বরিশাল মালিক সমিতির বাস চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়। ফলে বরিশালের উদ্দেশে দক্ষিণাঞ্চলের খুলনার রূপসা, বাগেরহাট, মহেশপুর ও পিরোজপুর থেকে ছেড়ে আসা বাসগুলো ঝালকাঠির শেষ সীমানার চার কিলোমিটার আগে ঝালকাঠির রায়াপুরে আটকে যাচ্ছে।

ঝালকাঠি বাস ও মিনিবাস মালিক সমিতির দপ্তর সম্পাদক হুমায়ুন কবির বলেন, ‘সড়কে ন্যায্য হিসসার দাবি নিয়ে আন্দোলনরত ঝালকাঠি বাস ও মিনিবাস মালিক সমিতি ও শ্রমিক ইউনিয়নের নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করার জন্য বরিশাল বিভাগীয় কমিশনার মো. শহিদুজ্জামান মঙ্গলবার দিন ধার্য করেছিলেন। কিন্তু সেখানে বরিশাল বাস মালিক সমিতির কোনো নেতা উপস্থিত হননি। তাঁরা আমাদের দাবি উপেক্ষা করেছেন। তাই আমরাও ঝালকাঠির রুট ব্যবহার করে বরিশাল বাস মালিক সমিতির কোনো গাড়ি চলতে দেব না। তাঁদের রুটেও আমাদের গাড়ি চালাব না।’

 

 



মন্তব্য