kalerkantho


ঝিনাইদহে মেয়েকে আছড়ে মারল বাবা

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় গৃহবধূর, ফরিদপুরে যুবকের লাশ

প্রিয় দেশ ডেস্ক   

৪ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



ঝিনাইদহের হরিণাকুণ্ডুতে স্বামী-স্ত্রীর কলহের জেরে লিপি নামের আড়াই বছর বয়সী মেয়েকে হত্যা করেছেন তাঁর বাবা।

গতকাল বুধবার উপজেলার তাহেরহুদা ইউনিয়নের শ্রীপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। অভিযুক্ত লিটন মণ্ডল পলাতক। একই দিন ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় গৃহবধূর ও ফরিদপুরে যুবকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। কালের কণ্ঠ’র নিজস্ব প্রতিবেদক ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর :

ঝিনাইদহ : হরিণাকুণ্ডু থানার ওসি (তদন্ত) আসাদুজ্জামান জানান, শ্রীপুর গ্রামের লিটন মণ্ডলের সঙ্গে তাঁর স্ত্রী সাদিয়া বেগমের দাম্পত্য কলহ চলছিল। মঙ্গলবার রাতে লিটনের পকেট থেকে সাদিয়া ৫০ টাকা নেন। এ নিয়ে বুধবার সকাল ৯টার দিকে লিটন-সাদিয়ার মধ্যে বাগিবতণ্ডা শুরু হয়। একপর্যায়ে লিটন উত্তেজিত হয়ে সাদিয়াকে মারধর করতে থাকেন। সাদিয়া প্রতিবাদ করলে তাঁর কোলে থাকা আড়াই বছরের মেয়ে লিপিকে লিটন ছিনিয়ে নিয়ে পাকাঘরের মেঝেতে আছাড় মারেন। এতে ঘটনাস্থলেই লিপির মৃত্যু হয়। এরপর লিটন পালিয়ে যান। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লিপির লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ঝিনাইদহ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া : পৌর এলাকার পশ্চিম মেড্ডা থেকে গৃহবধূ মনোয়ারা বেগমের লাশ গতকাল সকালে উদ্ধার করে পুলিশ। পরে জেলা সদর হাসপাতালে লাশের ময়নাতদন্ত হয়।

পুলিশ জানায়, সুনামগঞ্জ জেলার বাসিন্দা অটোরিকশাচালক শরীফ উদ্দিন তাঁর স্ত্রীকে নিয়ে পশ্চিম মেড্ডায় ভাড়া থাকতেন। এই দম্পত্তির মধ্যে পারিবারিক কলহ লেগে ছিল। মঙ্গলবার রাতের কোনো এক সময়ে মনোয়ারা ফাঁসিতে ঝুলে আত্মহত্যা করে থাকতে পারেন। তবে ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন না পাওয়া পর্যন্ত এ বিষয়ে নিশ্চিত করে কিছু বলা যাচ্ছে না।

ফরিদপুর : শহরের হাজী শরীয়তউল্লাহ বাজারসংলগ্ন আলীমুজ্জামান বেইলি ব্রিজের নিচে কুমার নদ থেকে গতকাল দুপুরে এলাকাবাসীর কাছ থেকে খবর পেয়ে অজ্ঞাতপরিচয় যুবকের অর্ধগলিত বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার করা হয়।

ফরিদপুর কোতোয়ালি থানার ওসি মো. নাজিমউদ্দিন আহমেদ জানান, ওই যুবকের গলায় গামছা বাঁধা ছিল। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, দুর্বৃত্তরা তাঁকে অন্য কোথাও হত্যার পর নদে ফেলে দেয়। ময়নাতদন্তের জন্য লাশ ফরিদপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে মামলা প্রক্রিয়াধীন।

 



মন্তব্য