kalerkantho


সড়কে ঝরল ছয় প্রাণ

প্রিয় দেশ ডেস্ক   

১৪ ডিসেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে যাত্রীবাহী দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে নারীসহ তিনজন নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে কমপক্ষে ২৩ জন। টাঙ্গাইলের মির্জাপুর উপজেলায় যাত্রীবাহী বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশে খাদে পড়ে শিশুসহ দুজন নিহত ও ১৫ জন আহত হয়েছে। নাটোরের বড়াইগ্রামে সড়ক দুর্ঘটনায় সিরাজগঞ্জের তাড়াশের যুবক, পাবনা সরকারি অ্যাডওয়ার্ড বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের ছাত্র নিহত হয়েছেন। বিস্তারিত কালের কণ্ঠ’র প্রতিনিধিদের পাঠানো খবরে :

রাজশাহী : গোদাগাড়ী উপজেলায় যাত্রীবাহী দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে নারীসহ তিনজন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছে কমপক্ষে ২৩ জন। গতকাল বুধবার সকালে মাটিকাটা কলেজের সামনে রাজশাহী-চাঁপাইনবাবগঞ্জ মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন হৃদয় ট্রাভেলসের বাসের সহকারী চালক, নওগাঁর পোরশার বন্দাপাড়া গ্রামের সৈকতের ছেলে শুভ এবং বাসযাত্রী সাপাহারের দিঘিপাড়ার আলিমুদ্দীনের ছেলে হারুন অর রশিদ ও চাঁপাইনবাবগঞ্জের নাচোলের সোনামানার আশিয়া খাতুন। আহতদের মধ্যে হৃদয় ট্রাভেলসের বাসের সুপারভাইজার মুকুল ও চালক সাইফুল ইসলাম এবং যাত্রী জহুরুল ইসলাম, কাফি, লুত্ফর রহমান (১), বেলাল হোসেন, লুত্ফর রহমান (২) ও নিজামুল হক রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি আছেন। অন্যরা প্রেমতলী হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছে। আহত ও প্রত্যক্ষদর্শীদের সূত্রে জানা যায়, গতকাল সকালে রাজশাহী থেকে চাঁপাইনবাবগঞ্জগামী হৃদয় ট্রাভেলসের বাসের সঙ্গে বিপরীত দিক থেকে আসা ঢাকাগামী একতা এন্টারপ্রাইজের বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই শুভ নিহত হন। হাসপাতালে নেওয়ার পথে ও পরে আরো দুজনের মৃত্যু হয়। দুর্ঘটনায় আহত হয়েছে কমপক্ষে ২৩ জন। পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা তাদের উদ্ধার করেছে। গোদাগাড়ী থানার উপপরিদর্শক (এসআই) আব্দুল করিম জানান, ঘন কুয়াশার কারণে বাস দুটি নিয়ন্ত্রণ হারালে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়।

তাড়াশ (সিরাজগঞ্জ) : নাটোরের বড়াইগ্রামে সড়ক দুর্ঘটনায় সিরাজগঞ্জের তাড়াশের যুবক পাপন কুমার বসাক নিহত হয়েছেন। তিনি তাড়াশের মাধাইনগরের সুকুমার বসাকের ছেলে ও পাবনা সরকারি অ্যাডওয়ার্ড বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের অনার্স শেষ বর্ষের ছাত্র। গতকাল বুধবার দুপুরে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন তিনি মারা যান। এর আগে মঙ্গলবার সকালে পাবনা থেকে সিএনজিচালিত অটোরিকশায় করে বাড়ি আসার পথে নছিমনের সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনায় পাপন আহত হয়েছিলেন।

টাঙ্গাইল : মির্জাপুর উপজেলায় যাত্রীবাহী বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশে খাদে পড়ে শিশুসহ দুজন নিহত ও ১৫ জন আহত হয়েছে। গতকাল বুধবার ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের উপজেলার ধেরুয়া এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন সদর উপজেলার আতোয়ার রহমানের স্ত্রী ইসরাত পারভীন ও ঢাকার ধামরাইয়ের শিমুলিয়া গ্রামের দীপক সূত্রধরের ছেলে সকাল সূত্রধর (৩)। আহতদের মির্জাপুর কুমুদিনী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।


মন্তব্য