kalerkantho


মাদরাসার পরিত্যক্ত কক্ষে ছাত্রের লাশ

লক্ষ্মীপুরে পুকুরে নিখোঁজ বৃদ্ধের মরদেহ

প্রিয় দেশ ডেস্ক   

২২ নভেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



নওগাঁর রানীনগরে মাদরাসার পরিত্যক্ত কক্ষে ছাত্রের হাত-পা বাঁধা ও ঝুলন্ত লাশ মিলেছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য একই মাদরাসার চার ছাত্রকে থানায় নিয়েছে পুলিশ।

লক্ষ্মীপুর সদরে নিখোঁজের তিন দিন পর অব্যবহূত পুকুরে পাওয়া গেছে বৃদ্ধের ক্ষতবিক্ষত মরদেহ। বিস্তারিত প্রতিনিধিদের পাঠানো খবরে :

নওগাঁ : রানীনগর উপজেলার ঘোষগ্রাম নুরানী হাফেজিয়া মাদরাসার পরিত্যক্ত কক্ষে ছাত্র মো. সিজানের ঝুলন্ত লাশ মিলেছে। লাশের হাত-পা বাঁধা ছিল। সিজান একই মাদরসার কিতাব বিভাগের দশম শ্রেণির ছাত্র ছিল। খবর পেয়ে পুলিশ গতকাল মঙ্গলবার সকালে লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠিয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য মাদরাসার চার ছাত্রকে থানায় নিয়ে গেছে তারা। সিজান ঘোষগ্রামের পল্লী চিকিৎসক আব্দুর বারিকের ছেলে ছিল। স্থানীয়দের ধারণা, সিজানকে হত্যা করে লাশ পরিত্যক্ত কক্ষটিতে ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে। তবে হত্যাকাণ্ডের কারণ জানাতে পারেনি কেউ।

পরিবার ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, প্রতি সপ্তাহের সোমবার রাতে বাড়িতে যেত সিজান। অনেক রাত হয়ে গেলেও গত সোমবার বাড়িতে না যাওয়ায় পরিবারের লোকজন তাকে খুঁজতে মাদরাসায় আসে। একপর্যায়ে মঙ্গলবার মাদরাসার পরিত্যক্ত কক্ষটিতে সিজানের হাত-পা বাঁধা ও ঝুলন্ত লাশ দেখতে পায় তারা। তাদের কাছ থেকে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশটি উদ্ধার করে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য মাদরাসার চার ছাত্রকে থানায় নেওয়া হয়েছে।

লক্ষ্মীপুর : নিখোঁজের তিন দিন পর নিজ বাড়ি থেকে আধা কিলোমিটার আগের অব্যবহূত পুকুরে পাওয়া গেছে বৃদ্ধ নুরনবীর লাশ। খবর পেয়ে পুলিশ গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে সদর উপজেলার হাজিরহাটের পুকুরটি থেকে তাঁর লাশ উদ্ধার করে। লাশের পেট ও হাতের আঙুল কাটা, মুখ থেঁতলানো এবং দাঁড়ি পোড়ানো ছিল। এ থেকে পরিবারের সদস্যদের ধারণা, নুরনবীকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে। তিনি একই উপজেলার শাকচর গ্রামের বাসিন্দা এবং ছয় মেয়ে ও এক ছেলের বাবা ছিলেন। পরিবার ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, গত শনিবার সন্ধ্যায় হাজিরহাটের উদ্দেশে বাড়ি থেকে বের হন নুরনবী।


মন্তব্য