kalerkantho


প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাৎ চান অসুস্থ নাট্যকার মতি

নিজস্ব প্রতিবেদক, গাজীপুর   

১৯ অক্টোবর, ২০১৭ ০০:০০



প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাৎ চান অসুস্থ নাট্যকার মতি

গুরুতর অসুস্থ খ্যাতিমান নাট্যকার ও নির্মাতা মতিউর রহমান গাজীপুরী। ওপেন হার্ট সার্জারি করা তাঁর দেহের দুটি কিডনিও প্রায় অকেজো।

সেই সঙ্গে বাসা বেঁধেছে ডায়াবেটিক নামের ঘাতক ব্যাধি। অর্থ সংকটে চিকিৎসা করাতে না পেরে গাজীপুরের পোড়াবাড়ির নিজ বাড়িতে অনেকটাই মানবেতর জীবন কাটাচ্ছেন দেশের দ্বিতীয় প্যাকেজ নাটকের নির্মাতা গাজীপুরী। চিকিৎসার অভাবে মুক্তিযোদ্ধা গাজীপুরী দিন দিন দুর্বল হয়ে পড়ছেন। চিকিৎসক জানিয়েছেন, ভারতে তাঁর উন্নত চিকিৎসা রয়েছে। তবে এ জন্য যে অর্থের প্রয়োজন, তা তাঁর নেই। তাই তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে দেখা করতে চান। সুস্থ হয়ে আবারও তিনি ফিরতে চান স্বমহিমায়।

মতিউর রহমান গাজীপুরী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ব্যবস্থাপনায় মাস্টার্স করে ১৯৮০ সালে অধ্যাপক হিসেবে যোগ দেন গাজীপুর শহরের কাজী আজিম উদ্দিন কলেজে। নাটকের টানে বেশি দিন অধ্যাপনায় থাকতে পারেননি।

তাঁর প্রথম নাটক ‘জীবন যেমন’ ব্যাপক দর্শকপ্রিয়তা পায়। এর পর আর তাঁকে পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। একে একে রচনা ও নির্মাণ করেনÍপলাশডাঙ্গার মাঝি, সুখ নিলয়, দুই দিগন্ত, ঘোমটা, চিঠি আসবে, অতঃপর একজন নিজাম, মানচিত্র, যখন বৃষ্টি, বিবর্ণ অধ্যায়, বৃষ্টির সীমানায়, শ্রাবণে বসন্ত, বদলে যাওয়া দিন, ঠিকানা, দৃষ্টি, ভালবাসা তুমি, অন্তরে দহন, পদধ্বনি প্রজন্মের, ক্রস রোডে ক্রস ফায়ারসহ বহু উল্লেখযোগ্য নাটক। গাজীপুরী ২০০৮ সালে প্রথম হৃদরোগে আক্রান্ত হন। ২০১২ সালের শেষ দিকে হঠাৎ ডায়াবেটিক বেড়ে যায়। এর পর ধরা পরে কিডনির রোগ। তাঁর স্ত্রীও ডায়াবেটিকে আক্রান্ত। অসুখের সঙ্গে লড়াই করতে করতে এখন প্রায় নিঃস্ব গাজীপুরী। দু্ই ছেলের মধ্যে বড়জন কলেজশিক্ষক। ছোট ছেলে একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের এমবিএর ছাত্র। চিকিৎসা, ছোট ছেলের লেখাপড়া ও সংসার খরচÍসব কিছুই বড় ছেলের একার আয়ে চলে।

আক্ষেপ করে গাজীপুরী বলেন, ‘আমার কারণে অনেকেই নাটকে অভিনয় ও নাটক নির্মাণের কাজ পেয়েছে। তাদের অনেকেই আজ প্রতিষ্ঠিত। কিন্তু যোগাযোগ করলেও এখন আর কেউ আমার খোঁজ নেয় না। ব্যতিক্রম শুধু গাজীপুর শিল্পী ঐক্যজোট। ’ তিনি বলেন, ‘আমি সুস্থ হতে চাই। আবার নাটক রচনা ও নির্মাণ করতে চাই। ’


মন্তব্য