kalerkantho


দেবিদ্বারে ছাত্রলীগকর্মী খুনের কারণ জানা যায়নি

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি   

২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



দেবিদ্বারে ছাত্রলীগকর্মী খুনের কারণ জানা যায়নি

আজমীর হোসেন শাওন

কুমিল্লার দেবিদ্বারে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবার ছাত্রলীগকর্মী খুনের কারণ এখনো জানা যায়নি। এ ঘটনায় নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে দেবিদ্বার থানায় অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তিদের আসামি করে মামলা করা হয়েছে।

গত দুই দিনেও পুলিশ এ ঘটনায় কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি। ময়নাতদন্ত শেষে ইতিমধ্যে নিজ গ্রামে তাঁর দাফন সম্পন্ন হয়েছে।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার সকালে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলার কায়েমপুর ইউনিয়নের পানিয়ারূপ গ্রামের মো. আজমীর হোসেন ভূঁইয়া শাওনের (২৫) লাশ দেবিদ্বারের সংচাইল এলাকা থেকে উদ্ধার করে সেখানকার পুলিশ। শাওন কসবা টি আলী ইউনিভার্সিটি কলেজের স্নাতক প্রথম বর্ষের ছাত্র ও পানিয়ারূপ গ্রামের আনোয়ার হোসেন আঙ্গুর ভুইয়ার ছেলে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অনেকের দেওয়া পোস্টে শাওনকে টি আলী কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সহসভাপতি বলা হলেও সংশ্লিষ্টরা বলছেন সংগঠনে তাঁর কোনো পদ ছিল না।

শাওনের বড় ভাই আবু সুফিয়ান রিপন উপজেলা ছাত্রলীগের ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা সম্পাদক এবং টি আলী কলেজ শাখা ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ছিলেন। বছর তিনেক আগে কসবায় এক মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় তিনি নিহত হন।

শাওনের মা সাহেরা বেগম সাংবাদিকদের বলেন, ‘গত বুধবার দুপুরে শাওন বাড়িতেই খাওয়া-দাওয়া করে। বিকেলে  সে বাড়ি থেকে বের হয়।

এরপর থেকেই তার আর খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না। তখন থেকে মোবাইলফোনটিও বন্ধ ছিল। ’

শাওনের বাবা মো. আনোয়ার হোসেন জানান, ফেসবুকে লাশের ছবি দেখে তাঁরা এটি শাওনের বলে নিশ্চিত হন। এ বিষয়ে তাঁরা কাউকে সন্দেহও করতে পারছেন না। শাওনের তেমন কোনো শত্রু ছিল না বলে তিনি দাবি করেন।

কসবার টি আলী বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি মো. শফিউর রহমান সাগর বলেন, ‘কিভাবে শাওনের মৃত্যু হয়েছে এ সম্পর্কে আমরা নিশ্চিত নই। সে টি আলী কলেজ শাখা ছাত্রলীগের কমিটিতে ছিল না, তবে সে এ কলেজেই পড়াশোনা করত। ’

দেবিদ্বার থানার ওসি মো. মিজানুর রহমান জানান, নিহতের বুকে গুলির চিহ্ন রয়েছে। এ ঘটনায় তাঁর বাবা বাদী হয়ে অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তিদের আসামি করে থানায় মামলা করেছেন। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

কসবা থানার ওসি মো. মহিউদ্দিন বলেন, ‘শাওন নিখোঁজ হওয়ার বিষয়ে আমাদের কেউ কিছু জানায়নি। তাঁর বিষয়ে পুলিশের কাছেও তেমন কোনো তথ্য নেই। ’


মন্তব্য