kalerkantho


মাগুরায় স্বামীর হাতে স্ত্রী খুন

বাউফলে গৃহবধূ, ঝিনাইগাতীতে যুবকের লাশ

প্রিয় দেশ ডেস্ক   

৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



মাগুরার শ্রীপুরে স্বামীর হাতে স্ত্রী খুন হয়েছেন। এ ঘটনায় দুজনকে আটক করেছে পুলিশ।

অন্যদিকে পটুয়াখালীর বাউফলে গৃহবধূ ও শেরপুরের ঝিনাইগাতীতে যুবকের লাশ পাওয়া গেছে। বিস্তারিত প্রতিনিধিদের পাঠানো খবরে :

মাগুরা : শ্রীপুর উপজেলায় দাবি করা টাকা না পেয়ে গৃহবধূ সীমা বিশ্বাসকে মারধর করে হত্যার পর লাশ ঝুলিয়ে রাখার অভিযোগ পাওয়া গেছে স্বামী সুব্রত বিশ্বাসের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে গত শনিবার রাতে উপজেলার চাকদহ গ্রামে। খবর পেয়ে পরদিন রবিবার পুলিশ গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে। এ ব্যাপারে সীমার ভাই অশোক বিশ্বাস থানায় অভিযোগ দিয়েছেন। অভিযুক্ত স্বামী সুব্রত পলাতক রয়েছে। পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সীমার শ্বশুর অখিল বিশ্বাস ও শাশুড়ি সবিতা বিশ্বাসকে আটক করেছে। ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে শ্রীপুর থানার ওসি রেজাউল ইসলাম জানান, সীমার শরীরে আঘাত ও জখমের চিহ্ন রয়েছে। আঘাতের কারণে তাঁর কান দিয়ে রক্ত ঝরার চিহ্ন রয়েছে।

অভিযুক্ত স্বামী পলাতক। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য শ্বশুর ও শাশুড়িকে আটক করা হয়েছে।

পটুয়াখালী : বাউফল উপজেলার ঘুচরাকাঠি গ্রাম থেকে গতকাল রবিবার গৃহবধূ আমেনা বেগমের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গৃহবধূর বাবা মো. সিদ্দিক ফকির অভিযোগ করেন, তাঁর মেয়েকে প্রায়ই যৌতুকের জন্য মারধর করত স্বামী জুয়েল সরদার। শনিবার রাতে জুয়েল ও তার পরিবারের লোকজন আমেনাকে নির্যাতন করে হত্যার পর লাশ ঘরে ফেলে রেখে পালিয়ে যায়। এ ব্যাপারে বাউফল থানার ওসি আজম খান ফারুকী বলেন, ‘লাশের ময়নাতদন্ত এবং তদন্ত শেষে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ’

শেরপুর : ঝিনাইগাতী উপজেলায় অজ্ঞাতপরিচয় যুবকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গতকাল রবিবার সকালে উপজেলার মাটিয়াপাড়া বিদ্যুৎ সাবস্টেশন এলাকা থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়। যুবকের পরনে চেকের লুঙ্গি ও হুডি ছিল। ঝিনাইগাতী থানার ওসি মিজানুর রহমান জানান, এ ব্যাপারে একটি অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে। লাশের ময়নাতদন্তের জন্য জেলা হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।


মন্তব্য