kalerkantho


শেরপুরে নারী নির্যাতন মামলায় শিক্ষক কারাগারে

শেরপুর প্রতিনিধি   

১ জুলাই, ২০১৫ ০০:০০



নারী নির্যাতন মামলায় শেরপুর মেমোরিয়াল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. জাহাঙ্গীর আলমকে কারাগারে পাঠিয়েছেন শেরপুরের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালত। মঙ্গলবার দুপুরে তিনি আদালতে হাজির হলে তাঁকে জেলা কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন বিচারক মো. সাইদুর রহমান খান।

জানা গেছে, মো. জাহাঙ্গীর আলম প্রায় দুই বছর আগে ওই বিদ্যালয়ের এক সহকারী শিক্ষিকাকে ধর্ষণের চেষ্টা চালান। পরে ওই শিক্ষিকা তাঁর বিরুদ্ধে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে থানায় একটি মামলা করেন। এ ঘটনায় শিক্ষিকার স্বামী তাঁকে তালাক দিলে প্রধান শিক্ষক মামলা তুলে নেওয়ার শর্তে ২০১৩ সালের ২৪ মে শিক্ষিকাকে বিয়ে করেন। গত ২৭ জানুয়ারি মামলার নিষ্পত্তি হয়। কিন্তু মামলা নিষ্পত্তির পরই তাঁদের মধ্যে কলহ দেখা দেয়। এরপর থেকে স্ত্রীর ওপর নির্যাতন চালিয়ে তাঁকে তালাক নেওয়ার দাবি করেন প্রধান শিক্ষক। কিন্তু শিক্ষিকা রাজি না হওয়ায় গত ৬ মার্চ স্ত্রীকে তালাক দেন তিনি। এ ঘটনায় যৌতুকের জন্য মারধর করার অভিযোগ তুলে গত ১৬ জুন আদালতে স্বামী জাহাঙ্গীর আলমের বিরুদ্ধে নারী নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন স্ত্রী। মামলার তদন্ত শেষে আদালত সমন জারি করলে মঙ্গলবার তিনি আদালতে হাজির হলে তাঁকে জেলহাজতে পাঠানো হয়।

মামলার বাদী শিক্ষিকা বলেন, 'অমানুষিক নির্যাতন করে প্রতারক জাহাঙ্গীর আমার জীবনটাকে শেষ করে দিয়েছে। আমি বাধ্য হয়ে আদালতের শরণাপন্ন হয়েছি। ওর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই। '

 


মন্তব্য