kalerkantho


বিদ্যালয়ের জমি বিক্রির টাকা আত্মসাৎ

শরীয়তপুরের মেয়রসহ ১২ জনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

শরীয়তপুর প্রতিনিধি   

১ জুলাই, ২০১৫ ০০:০০



বিদ্যালয়ের জমি বিক্রির টাকা আত্মসাতের অভিযোগে দুদকের দায়ের করা মামলায় শরীয়তপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পৌরসভার মেয়র আব্দুর রব মুন্সীসহ ১২ জনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত। গতকাল মঙ্গলবার শরীয়তপুরের সিনিয়র স্পেশাল জজ এবং জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মোহাম্মদ আতাউর রহমান এ পরোয়ানা জারি করেন।

বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মেয়র আব্দুর রব মুন্সী ছাড়া গ্রেপ্তারি পরোয়ানাভুক্ত অন্য আসামিরা হলেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আনোয়ার হোসেন কামাল, ম্যানেজিং কমিটির সদস্য আবদুস সালাম হাওলাদার, মজিবুর রহমান হাওলাদার, আইউব আলী মল্লিক, আব্দুল কুদ্দুস মোল্যা, বেগম আলফাতুন্নেছা, সুজন সাহা, সংগীতা সাহা, রণজিৎ কুমার সাহা, জমি গ্রহীতা জাহাঙ্গীর আলম ও আবদুস সালাম।

জানা যায়, সদর উপজেলার আঙ্গারিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের ৩ একর ৭১ শতাংশ জমির সর্বনিম্ন বাজার দর ছিল চার কোটি ৫৭ লাখ ৪২ হাজার ৪৪৫ টাকা। কিন্তু ২০১২ সালে জমিটি জে সরদার করপোরেশন নামের একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের কাছে এক কোটি ৫০ লাখ টাকায় বিক্রি করা হয়। দলিলে জমি বিক্রির টাকা বুঝে পেয়ে জমি বুঝিয়ে দেওয়ার কথা উল্লেখ থাকলেও বিদ্যালয়ের তহবিলে কোনো টাকা জমা দেওয়া হয়নি। পরে জমি গ্রহীতা জে সরদার করপোরেশনের মালিক জাহাঙ্গীর আলম ও তাঁর ভাই আবদুস সালাম ৭০ লাখ ও ৮০ লাখ টাকার দুটি চেক দেন। চেক দুটি বিদ্যালয়ের তহবিলে জমা করা হয়। কিন্তু চেকের স্বাক্ষর মিল না থাকা ও জমি গ্রহীতার ব্যাংক হিসাব নম্বরে পর্যাপ্ত টাকা না থাকায় চেক দুটি ফেরত দেয় ব্যাংক। পরে দুদকের ফরিদপুর আঞ্চলিক কার্যালয় বিষয়টি তদন্ত করে গত ৬ আগস্ট পালং মডেল থানায় একটি মামলা করে।

 


মন্তব্য