kalerkantho

ফিটনেস

কেটলবেলে ব্যায়াম

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৬ মার্চ, ২০১৭ ১২:৫৭



কেটলবেলে ব্যায়াম

শরীর গঠনে একটি গুরুত্বপূর্ণ ব্যায়াম কেটলবেল অনুশীলন। ঘরোয়া পরিবেশে এই কেটলবেল ইনস্ট্রুমেন্টকে ব্যায়াম ইনস্ট্রুমেন্টের 'কালাশনিকভ' বলা হয়। কেটলবেল নিয়ে বেশ কিছু ব্যায়ামের সঙ্গে আমরা আগেই পরিচিত হয়েছি। এই ইনস্ট্রুমেন্ট নিয়ে আমরা আরো কিছু ব্যায়ামের সঙ্গে পরিচিত হব।

১. কেটলবেল সুইং : এ ব্যায়ামকে কেটলবেল ব্যায়ামের রাজা বলা হয়। হাতের তালু নিজের দিকে রেখে এবং কোমরকে পেছনের দিকে ঠেলে দিয়ে দুই হাতে কেটলবেল এমনভাবে ধরতে হবে, যেন কেটলবেল হাঁটুর পেছনে থাকে। এবার কোমর ও কেটলবেল দ্রুতগতিতে সামনের দিকে ঠেলে দিতে হবে, যেন কোমর সোজা অবস্থায় এবং কেটলবেল বুক সমান উচ্চতায় আসে। এভাবে বেশ কয়েকবার অনুশীলন করতে হবে।

২. ওয়ান-আর্ম সুইং : এ ব্যায়ামটি আগেরটির মতোই। তবে কেটলবেল যখন সামনের দিকে ঠেলে দিতে হবে তখন দুই হাতে নয়, এক হাতে ধরতে হবে। কেটলবেল যখন বুক সমান অবস্থায় আসবে তখন হাত পরিবর্তন করে নিতে হবে।

এভাবে হাত পরিবর্তন করে অনুশীলন চালাতে হবে।

৩. ডাবল সুইং : এটিও প্রথমটির মতো। তবে দাঁড়ানো অবস্থায় দুই পায়ের মধ্যে ফাঁকাটা বাড়াতে হবে। কেননা এবার একটি নয়, কেটলবেল নিতে হবে দুটি। দুই হাতে দুই কেটলবেল নিয়ে অনুশীলন শুরু করতে হবে। তবে প্রথম অনুশীলনের মতো শুরুতেই কেটলবেল বুক সমান উচ্চতায় নেওয়াটা জরুরি নয়। শুরুতে অল্প এবং ধীরে ধীরে উচ্চতা বাড়িয়ে বুক সমান অবস্থায় নিয়ে আসতে হবে।

৪. সিঙ্গেল আর্ম ফ্রন্ট স্কোয়াট : কেটলবেল ধরা হাতের কনুই এমনভাবে বাঁকাতে হবে যেন কেটলবেলটি কাঁধের সামনে থাকে। কনুই থাকবে বাইরের দিকে। এবার ধীরে ধীরে বসতে হবে। বসা অবস্থায় অন্য হাতটি সামনের দিকে সোজা করে রাখতে হবে। এবার ধীরে ধীরে উঠে আবার বসতে হবে। এভাবে কয়েকবার অনুশীলন করতে হবে।

৫. সিঙ্গেল আর্ম প্রেস : সোজা হয়ে দাঁড়িয়ে এক হাতে থাকা কেটলবেল কাঁধ সমান উচ্চতায় তুলতে হবে। খেয়াল রাখতে হবে কেটলবেল যেন হাতের উল্টো পাশে স্পর্শ করে থাকে। এবার ধীরে ধীরে সোজা ওপরে তুলতে হবে। এভাবে ওপরে উঠিয়ে এবং নামিয়ে অনুশীলন করতে হবে। ধীরে ধীরে কেটলবেলের ওজন বাড়াতে হবে। (চলবে)

 


মন্তব্য