kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৮ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


কৃষিশিক্ষা

৪টি অধ্যায় দেখলেই ভালো করা যাবে

১৯ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



৪টি অধ্যায় দেখলেই ভালো করা যাবে

ক) সৃজনশীল অংশ :

বইয়ে মোট অধ্যায় ৬টি। সব অধ্যায় থেকে মিলিয়ে মোট ৯টি প্রশ্ন থাকবে এবং যেকোনো ৬টি প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে।

প্রয়োগমূলক প্রশ্নে গাণিতিক তথ্য থাকতে পারে। ৬টি অধ্যায়ের মধ্যে পঞ্চম অধ্যায়সহ যেকোনো ৪টি অধ্যায় ভালোভাবে দেখলেই সৃজনশীল প্রশ্নগুলোর উত্তরে ভালো করতে পারবে।

যে পরিচ্ছেদ পড়া আছে, সেগুলো রিভাইস দেবে। সঙ্গে উল্লিখিত অধ্যায়গুলোও মন দিয়ে পড়বে। বিভিন্ন অধ্যায়ে থাকা টেবিলগুলো ভালোভাবে রপ্ত করবে। এগুলো ব্যবহার করে অঙ্ক করা লাগে। যেমন—সার ও বীজের হার, মাশরুম চাষ, গৃহপালিত পশুর খাদ্য নমুনার সারণি, মাছের খাদ্য নমুনা, গলদা চিংড়ির একক চাষ ও কার্পজাতীয় মাছের মিশ্র চাষের ক্ষেত্রে পোনা মজুদের হার এবং সম্পূরক খাদ্যের তালিকা—এগুলো খুব ভালোভাবে মুখস্থ করবে। বারবার লিখে প্র্যাকটিস করবে।

বিভিন্ন প্রকার ফসল চাষের ক্ষেত্রে বপনের সময় ও ফসল ঘরে তোলার সময় মনে রাখবে।

উত্তরে চিত্র থাকলে তা পেনসিলের সাহায্যে আঁকবে। বাসায় বারবার অনুশীলন না করলে অল্প সময়ে ভালো চিত্র আঁকা সম্ভব হবে না।

সময় বণ্টন : রচনামূলক অংশের সময় ২ ঘণ্টা ২০ মিনিট। গড়ে একটি প্রশ্নের জন্য ২০ মিনিট সময় নেবে। আর ২০ মিনিট সময় হাতে রাখবে রিভিশনের জন্য। প্রতি ২০-২২ মিনিটে একটি প্রশ্নের উত্তর শেষ হচ্ছে কি না—অবশ্যই খেয়াল করবে।

 

খ) বহু নির্বাচনী অংশ : এ অংশে ৪০টি প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে, নম্বরও ৪০। প্রশ্ন সাজানো হয় এভাবে—

৩০টি প্রশ্নের মধ্যে জ্ঞানমূলক ২৪টি ও অনুধাবনমূলক ৬টি। বহুপদী সমাপ্তিসূচক ৪টি। অভিন্ন তথ্যভিত্তিক প্রশ্নে সাধারণত ৪-৫টি উদ্দীপক থেকে ৮-১০টি প্রশ্ন থাকে। বহুপদী সমাপ্তিসূচক প্রশ্নের ক্ষেত্রে ৩টি বিবৃতি ভালোভাবে পড়বে। এগুলো খুব কাছাকাছি থাকে। বিষয়বস্তু সম্পর্কে শিক্ষার্থীর জ্ঞানের গভীরতা, বুদ্ধিমত্তা ও দক্ষতা যাচাইয়ের জন্য এ ধরনের প্রশ্ন করা হয়। বহু নির্বাচনী অংশে ভালো করতে হলে পুরো বইটিই ভালোভাবে পড়বে।


মন্তব্য