kalerkantho


সবার আগে সব সময় বাংলা ভাষা

৩ মার্চ, ২০১৮ ০০:০০



সবার আগে সব সময় বাংলা ভাষা

বাংলা ভাষায় অবলীলায় নির্ধারিত সময় ধরে কথা বলে ভিডিও আকারে ফেসবুকে আপলোড করতে হবে—এ রকম একটি প্রতিযোগিতার বিজ্ঞাপন ফেসবুকে দেখে একটু অবাক হয়েছি। বিষয়টি আত্মসম্মানে খুব লাগল; আমরা নিজের ভাষা অনবরত বলতে পারি না? এতই ভিনদেশি ভাষার প্রেমে ডুবে আছি আমরা? তবু মনে হলো, অন্তত মানুষ বাংলা ভাষাকে যে অবজ্ঞা করে চলেছে সেটা দূর করার জন্য এই প্রতিযোগিতাটি সহায়ক ভূমিকা রাখবে। আজকাল যে যত বেশি ইংলিশ শব্দ ব্যবহার করবে, সে তত বেশি স্মার্ট। এ রকম একটি চিন্তাধারা আমাদের ব্রেনে ঢুকে গেছে। শুধুই কি ইংলিশ? কোরিয়ান, চায়নিজ মুভি দেখে কুড়িয়ে পাওয়া শব্দ ব্যবহার করলে তো মানুষজন আধুনিক ভাবা শুরু করে। এই তথাকথিত স্মার্ট হওয়ার লোভে পড়ে আমরা নিজের ভাষাকে তাচ্ছিল্য করতে কুণ্ঠাবোধ করি না। একদিন লাইব্রেরিতে গিয়ে বাংলা একটি কবিতার বই হাতে নিয়ে পড়তে ছিলাম, আমার সহপাঠী বলল, তুই এখানে এসে বাংলা পড়ছিস? সিরিয়াসলি? বাংলা কোনো পড়ার বিষয় হইল? বাংলাকে সবার অবজ্ঞা করা শুরু হয় স্কুল লাইফেই, কেউ বাংলা পড়তেই চায় না, অভিভাবকরাও চান ইংলিশ অঙ্ক ভালো পারলে সেটা অহংকারের বিষয়। বাংলা পড়ে লাভ কি? এমনকি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়েও কেউ বাংলা সাহিত্য নিয়ে পড়লে তাকে খুব খারাপ স্টুডেন্ট মনে করা হয়, আর কোথাও চান্স পায়নি, তাই বাংলা নিয়ে আছে, লজ্জা করে না সায়েন্সের স্টুডেন্ট হয়ে বাংলা নিয়ে পড়ো? উত্তর দিতে না পারা শিক্ষার্থী মাথা নিচু করে চলে যায়। অথচ এই বাংলা সাহিত্য বিশ্বের ১০০টি বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ানো হয়। যারা স্প্যানিশ কথা বলে, তারা কখনো নিজের ভাষাভাষীর সঙ্গে ইংলিশ বলতে চায় না। কিন্তু আহা আমরা বাঙালি, আমাদের ইংলিশ না বললে লজ্জা হয়! অথচ আমার বাংলা ভাষা আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা, আমরা ভুলে গেছি বায়ান্নর কথা! ভুলে গেছি ভাষাসৈনিকদের আত্মত্যাগ। জি, আমরা নাকি আধুনিক হয়ে গেছি; ধিক্কার জানাই, এই আধুনিকতাকে। শুধু ভাষার মাসে নয়, সব সময় সবার আগে আমার বাংলা ভাষা।     জাহিন প্রিমা

 



মন্তব্য