kalerkantho


ফেসবুক থেকে পাওয়া

আপনাকে এগিয়ে দিই?

৬ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



ঢাকা শহরের আধুনিক একটি শপিং মল। চারদিকে লিফট, চলন্ত সিঁড়ি। এমনই একটি সিঁড়ির সামনে মহিলাটি দাঁড়িয়ে আছেন। মহিলা বৃদ্ধা। গ্রাম থেকে এসেছেন হয়তো বা। এ রকম মলে আগে এসেছেন কি? মহিলা ওপরে উঠবেন। কিন্তু চলন্ত সিঁড়ির সামনে এক পা দেন, তো আরেক পা পিছিয়ে যান। এই ঘটঘট যান্ত্রিক সিঁড়িগুলোকে প্রচণ্ড ভয় গ্রামের ওই সহজ-সরল মহিলার। ‘মা, আপনাকে এগিয়ে দিই’? ‘না বাজান, আমি পারুম না। ডর লাগে।’ ‘তাহলে লিফটে চড়িয়ে দিই?’ ‘না না, দম বন্ধ হইয়া মইরা যামু,’ অনুরোধ ফিরিয়ে দেন তিনি। সবার জন্য যেটা প্রবল গতির কারণ, সেটাই তাঁর জন্য মূর্তিমান প্রতিবন্ধকতা। হঠাৎ বিদ্যুৎ চলে যায় মলে। সাধারণত কয়েক সেকেন্ড লাগে আসতে; কিন্তু আজ কয়েক মিনিট চলে যায়। তাকিয়ে দেখি, সেই মহিলা এক পা এক পা করে ওপরে উঠে যাওয়ার সুযোগ পেয়ে গেছেন। আমাদের জন্য যেটা প্রতিবন্ধকতা, সেটাই এখন এই অগতির গতি।

 

আহাদ আদনান

মাতুয়াইল, ঢাকা।



মন্তব্য