kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


অর্ধেক দামে পাচ্ছেন বিশ্বমানের পণ্য

ফাহাদ আলম রাদ, সিইও, ওমেন্স ওয়ার্ল্ড কসমেটিকস

৫ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



অর্ধেক দামে পাচ্ছেন বিশ্বমানের পণ্য

 

আপনার পড়াশোনা বিজনেস ম্যানেজমেন্টে। কসমেটিকস সামলাচ্ছেন কিভাবে?

কসমেটিকসের বিষয়টি আসলে রসায়নবিদ্যাসংক্রান্ত, কিন্তু এর ব্যবস্থাপনার বিষয়টি আমার পড়াশোনার সঙ্গে যায়।

 

এনএইচ৬৯ সুগন্ধিটি তৈরি করতে কী কী বিষয় লক্ষ্য রেখেছিলেন?

নাসির হোসেনের  ইমেজ ও পছন্দকে ফলো করেছি। তাঁর সঙ্গে কথাবার্তা বলে বুঝেছি, হার্ড মেনজ ফ্লেভার তিনি পছন্দ করেন না। আবার কেবল ফুলেল সৌরভেও কাটে না তাঁর দিন। আমার দুটিকেই ব্লেন্ড করেছি। স্পোর্টি ফ্লেভার আনার চেষ্টা করেছি। বাজার গবেষণা করে আমরা দেখেছি, এখানকার বেশির ভাগ পুরুষের দিনই এভাবে কাটে। পরীক্ষা-নিরীক্ষা করতে গিয়ে আমরা ১৫টি ফ্লেভার তৈরি করেছিলাম। সেখান থেকে এনএইচ৬৯কেই নির্বাচন করেছি।

 

উপাদানগুলো নিয়ে বলুন

বেসিক উপাদান হলো অ্যাসেনশিয়াল বা ফ্রেশনেস অয়েল। সুগন্ধ দীর্ঘ সময় ধরে রাখার জন্য পিওর পারফিউম ব্যবহার করেছি। এ দুটি উপাদান আমাদের দেশে এখনো মানসম্পন্ন নয় বলে ফ্রান্স থেকে আমদানি করছি। আমাদের মেশিনগুলোর সবই যেহেতু অটোমেটেড, তাই এগুলোও ভারত থেকে আনতে হয়েছে। কিন্তু পারফিউম বানানোর সবটুকু কাজ আমরা দেশেই করছি।

 

একে দেশি ব্র্যান্ড বলা ঠিক হচ্ছে? 

অবশ্যই। অ্যাসেনশিয়াল অয়েল ছাড়া আর সবই তো যেমন  ফ্রুটি ফ্লেভার, লেমন ফ্লেভার, স্যান্ডালউড ইত্যাদি সবই দেশীয়। গবেষক ও কর্মচারীরাও সবাই বাংলাদেশি।  

 

মান প্রসঙ্গে কিছু বলুন

শুধু কসমেটিকসের মান নিয়ে কাজ করে যে প্রতিষ্ঠান, এসইএএস (সোসাইটি ফর সাউথ-ইস্ট এশিয়ান স্টাডিজ), আমরা তাদের থেকেও অনুমোদন পেয়েছি। এই মানের দেশি পণ্য আমাদের দেশে আর একটিও নেই। আমরা ‘বডি শপ ইউএসএকে ফলো করেছি। কিন্তু তাদের পণ্য কিনতে যে পয়সা খরচ করতে হবে, আমাদের পণ্য তার থেকে অর্ধেক দামে পাওয়া যাবে।


মন্তব্য