kalerkantho


প্রযুক্তিগত কারণে সম্ভব হলো না বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের উৎক্ষপণ

সাবেদ সাথী, নিউ ইয়র্ক প্রতিনিধি   

১১ মে, ২০১৮ ০৪:৪২



প্রযুক্তিগত কারণে সম্ভব হলো না বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের উৎক্ষপণ

প্রযুক্তিগত কারণে বৃহস্পতিবার প্রথম দফায় ওড়ানো সম্ভব হলো না বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১। সকল প্রস্তুতি সম্পন্নের পর শেষ মুহূর্তে অর্থাৎ টি মাইনাস ১০ সেকেন্ড আগে প্রযুক্তিগত সমস্যা দেখা দেওয়ার ফলে মহাকাশে উৎক্ষেপণ স্থগিত করা হয়। যুক্তরাষ্ট্রের স্থানীয় সময় শুক্রবার ৪টা ১৪ মিনিট এবং বাংলাদেশ সময় শনিবার রাত ২টা ১৪ মিনিটে উৎক্ষেপণের নতুন সময় ধার্য করে স্পেসএক্স। তবে কারিগরি কী সমস্যা দেখা দিয়েছে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত তা পরিস্কার করে বলেননি স্পেসএক্স।

এর আগে গত ৪ মে বাংলাদেশের প্রথম কৃত্রিম উপগ্রহ বঙ্গবন্ধু-১ স্যাটেলাইট বহনকারী স্পেসএক্সের প্রথম ফ্যালকন ৯ ব্লক ৫ রকেটটির ইঞ্জিনের অগ্নিসংযোগ পরীক্ষা সম্পন্ন করা হয়। তখন বলা হয়েছিল সবকিছুই ঠিক রয়েছে। ফ্যালকন ৯ ব্লক ৫ রকেটটি হেলথি ও সেফটি বলে উল্লেখ করেছিলেন স্পেসএক্স। ওইদিন কেপ ক্যানাভেরালে নাসা’র কেনেডির স্পেস সেন্টারের ৩৯-এ প্যাডে রাখা ফ্যালকন ৯ ব্লক ৫ রকেটটির ইঞ্জিনের অগ্নিসংযোগ পরীক্ষা বা ফায়ার টেস্ট সফলভাবে সম্পন্ন করা হয় বলে জানানো হয়। ওই রাতেই একটি টুইট বার্তায় স্পেসএক্স শুক্রবারের ‘স্ট্যাটিক ফায়ার টেস্ট’ নামের ওই পরীক্ষায় বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের উৎক্ষেপণ যান ফ্যালকন-৯ এ কোনো ত্রুটি ধরা পড়েনি। এটি সম্পূর্ণ কার্যকর বলে জানান স্পেসএক্স।

দুই-স্তরীয় এ রকেটটির কালো আন্তঃস্থল ও ল্যান্ডিং লাইনসহ পুনরায় বুলেস্টরের ভেতরের আশেপাশে অতিরিক্ত তাপকে রক্ষা করার জন্য প্রবেশ এবং অবতরণকালে উচ্চ তাপমাত্রার উপাদানগুলিকে সুরক্ষিত রাখার বিষয়গুলো পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হয়েছে। স্পেসএক্সের লঞ্চ দলের কেরোসিন এবং তরল অক্সিজেন প্রোটেক্টরগুলির সঙ্গে ফ্যালকন ৯ জ্বালানির জন্য একটি স্বয়ংক্রিয় প্রক্রিয়া পরিচালনার পর শুক্রবার স্ট্যাটিক ফায়ার টেস্ট করা হয়। 

প্রথম ধাপের নয়টি মেরিলিন ইঞ্জিনগুলি কয়েক সেকেন্ডের জন্য জ্বলতে থাকে এবং স্থায়ীভাবে মাটিতে দৃঢ়ভাবে বুস্টার নিয়ন্ত্রণ রাখতে সক্ষম। এই পরীক্ষা থেকে পাওয়া তথ্য থেকে শনিবার ক্যালিফোর্নিয়ার লসএঞ্জেলেসে স্পেসএক্স-এর সদর দপ্তর থেকে চূড়ান্ত রিপোর্ট পাঠানো হয়। তথ্য পর্যালোচনা শেষে রিপোর্ট হাতে পেয়েই ১০ মে উৎক্ষেপণ তারিখ নির্ধারণ করা হয়। 



মন্তব্য