kalerkantho


বাংলাদেশি খ্রিস্টান সমিতির প্রথম উদ্যোগ

কানেকটিকাটে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপন

সাবেদ সাথী, নিউ ইয়র্ক প্রতিনিধি   

৬ মার্চ, ২০১৮ ০৫:১৬



কানেকটিকাটে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপন

ছবি: কালের কণ্ঠ

এই প্রথমবারের মতো কানেকটিকাটের প্রবাসী বাংলাদেশি খ্রিস্টান সমিতি উদযান করেছে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ও মহান শহীদ দিবস। গত শনিবার সন্ধ্যায় ম্যানচেস্টারের একটি চার্চের মিলনায়তনে বাংলাদেশি খ্রিস্টান অ্যাসোসিয়েশন অব কানেকটিকাট (বিসিএসি)-এর আয়োজনে অনুষ্ঠিত উক্ত অনুষ্ঠানে স্থানীয় বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ উপস্থিতি হয়ে ভাষা শহীদদের প্রতি সশ্রদ্ধ শ্রদ্ধা জানান।

বাংলাদেশি খ্রিস্টান অ্যাসোসিয়েশন অব কানেকটিকাট (বিসিএসি)-এর সভাপতি কলিন্স বৈদ্য বাপ্পী ও হেমন্ত পালমার সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত উক্ত একুশের অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন (বিসিএসি)’র পৃষ্ঠপোষক ডেভিড স্বপন রোজারিও, বাংলাদেশি আমেরিকান অ্যাসোসিয়েশন অব কানেকটিকাট (বাক)-এর সাবেক সভাপতি ময়নুল হক চৌধুরী হেলাল, আহবায়ক লিটন গ্রেগরি, বিসিএসি’র সভাপতি কলিন্স বৈদ্য ও হেমন্ত পালমা। বাংলাদেশি খ্রিস্টান অ্যাসোসিয়েশন অব কানেকটিকাট (বিসিএসি)-এর সভাপতি কলিন্স বৈদ্য বাপ্পী তার বক্তব্যে বলেন, পৃথিবীতে একমাত্র বাঙালি জাতিই তাদের ভাষার জন্য রক্ত দিয়েছে। তাই প্রবাসে থেকেও যেন আমরা এই ভাষার মর্যাদা সমুন্নত রাখতে পারি সেই চেষ্টাই করব।

বাপ্পী আরো বলেন, প্রবাসে বেড়ে উঠা নতুন প্রজন্মের শিশু-কিশোরদের মাঝে বাংলাদেশের জাতীয় দিবস ও বাংলা সংস্কৃতি তুলে ধরার জন্য এবারেই আমাদের নতুন প্রয়াস আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ও মহান শহীদ দিবস উদযাপন। প্রথমবারের মত এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করায় আমরা অনেক সাড়া পেয়েছি। কানেকটিকাটের বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনসহ সর্বস্তরের মানুষ আমাদের ডাকে সাড়া দিয়ে উৎসাহ যুগিয়েছেন। একই সঙ্গে এ অনুষ্ঠানে এসে অংশ নিয়েছেন। এ জন্য তিনি উপস্থিত সকলকে আন্তরিকভাবে ধন্যবাদ জানান।

বিসিএসি’র পৃষ্ঠপোষক ডেভিড স্বপন রোজারিও তার বক্তব্যে মহান একুশে ফেব্রুয়ারি এবং মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস ও তাৎপর্য তুলে ধরেন। অনুষ্ঠানের মাঝে রিপন গমেজের নির্দেশনায় ‘রাষ্ট্র ভাষা বাংলা চাই’ নামে একটি নাটিকা মঞ্চস্থ করা হয়। এতে অংশ নেন উৎস, মিকি, হৃদয়, অমিত, শ্রুতি, আঞ্জেলিয়াস, জেসিকা, চেলসি ও এলভিস প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে কবিতা আবৃত্তি করেন বাহাউদ্দিন পিয়াল ও জুলিয়েট ডি সিলভা। সাংস্কৃতিক পর্বে সঙ্গীত পরিবেশন করেন রাশিদা আখন্দ লাকী, লিটন গ্রেগরি, ব্রিয়ানা বিশ্বাস, বর্ষা সরকার, ফিহা, আরিয়ানা বৈরাগী, মুকুট কস্তা, মিশাল দাস, ট্রাসিয়া বিশ্বাস ও এতান্না সরেন। এ ছাড়াও বাংলাদেশি খ্রিস্টান অ্যাসোসিয়েশন অব কানেকটিকাট (বিসিএসি)’র শিল্পীরা নাচ ও গান পরিবেশন করেন। এতে অংশ নেন-দিয়া কান্তা, শেরল পালমা, জেসিকা, জৈতী, শার্লী, শ্রুতি ও স্নেহা।



মন্তব্য