kalerkantho


আমিরাতের আল আইন প্যালেস যাদুঘর

এম আবদুল মন্নান, আমিরাত প্রতিনিধি    

২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ১৩:২১



আমিরাতের আল আইন প্যালেস যাদুঘর

যার হাত ধরে সংযুক্ত আরব আমিরাত আজ বিশ্ব দরবারে একটি মডেল রাষ্ট্রে পরিণত হয়েছে তিনি হলেন শেখ জায়েদ বিন সুলতান আল নাহিয়ান বা বাবা  জায়েদ।  আমিরাতি আর অধিকাংশ প্রবাসীরা তাঁকে বাবা জায়েদ বলেই ডাকেন এখনো।

শেখ জায়েদ তাঁর জীবদ্দশায় বেশিরভাগ সময় কাটাতেন দেশটির গ্রিনসিটি নামে খ্যাত আল-আইন সিটি প্যালেসে। তাঁর মৃত্যুর পর তাঁর স্মৃতিকে ধরে রাখতে আল-আইন প্যালেসকে করা হয়েছে প্যালেস জাদুঘর। যাতে পরিদর্শন করে যে কেউ ধারণা নিতে পারেন আমিরাতের জনক বাবা জায়েদের বৈচিত্র্যময় জীবন।

সংযুক্ত আরব আমিরাতের জনক ও দেশটির প্রথম প্রেসিডেন্ট শেখ জায়েদ বিন সুলতান আল নাহিয়ানের  জন্ম ১৯১৮ সালে আর তাঁর মৃত্য হয় ২০০৪ সালে। এই প্যালেসে তিনি স্বপরিবারে ১৯৩৭ থেকে ১৯৬৬ সাল পর্যন্ত বসবাস করেন। তার জীবদ্দশায় তিনি ১৯৯৮ সালে এটিকে যাদুঘর হিসেবে নির্মাণ করেন। ২০০১ সালে এটি আবুধাবি  টুরিস্ট অথরিটির আওতায় নিয়ে আসা হয়।

সপ্তাহের সোমবার ছাড়া প্রতিদিন সকাল সাড়ে ৮টা থেকে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টা পর্যন্ত ও শুক্রবার বিকেল ৩টা থেকে সাড়ে ৭টা দর্শনার্থীদের জন্য বিনামূল্যে উন্মুক্ত থাকে আল আইনের এ প্যালেস যাদুঘর।

প্রতিদিন বাংলাদেশি প্রবাসীসহ নানা দেশ থেকে আসা পযর্টক ও প্রবাসীরা এখানে আসেন। তাদের মতে এ যাদুঘরের আর্ট গ্যালারি, সংস্কৃতি, ইতিহাস ও ঐতিহ্যের সমারোহে শেখ জায়েদ পরিবার  ও আমিরাতের তখনকার অবস্থা সম্পর্কে যে কেউ সম্যক ধারণা পেতে পারেন।

এ জাদুঘরে আসলে আমিরাতের শাসক হয়ে কীভাবে সাদামাটা জীবনযাপন করতেন শেখ জায়েদ- দেখতে পাবেন। 

 


মন্তব্য