kalerkantho


খালেদার মামলার রায় নিয়ে অরাজকতা ঠেকানোর দাবি যুক্তরাষ্ট্র আ. লীগের

সাবেদ সাথী, নিউ ইয়র্ক প্রতিনিধি   

৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ০৪:৫৪



খালেদার মামলার রায় নিয়ে অরাজকতা ঠেকানোর দাবি যুক্তরাষ্ট্র আ. লীগের

ছবি : কালের কণ্ঠ

যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ নেতারা বলেছেন, খালেদা জিয়ার দূর্নীতি মামলার রায় আদালতের বিষয়। আদালতের রায়ের বিরুদ্ধে বিএনপি যে আন্দোলন করার ঘোষণা দিয়ে অরাজকতা ও বিশ্ঙ্খৃলা সৃষ্টির ঘোষনা দিয়েছে তা যে কোন মূল্যেই ঠেকাতে হবে। বিএনপি-জামায়াতের অস্থিতিশীল পরিস্থিতি তৈরির হুমকির প্রতিবাদে গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় জ্যাকসন হাইটসে বিক্ষোভ সমাবেশ ও একটি রেস্তোরাঁয় আলোচনা সভা করেন আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠন। 

সভায় বক্তরা বলেন, বিএনপি আইন আদালতকেও রাজনীতির নোংরা খেলায় নিয়ে এসেছে। দেশে যা কখনো হয়নি বিএনপি সেই খারাপ দৃষ্টান্ত ভবিষ্যত প্রজম্মের জন্য রেখে যাচ্ছে। আদালতের রায়ের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করা দেশের ইতিহাসে নজিরবিহীন ঘটনা। এ ধরনের ঘটনা দেশে কখনও ঘটেনি।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলাটি দীর্ঘ্য ১১ বছর কালক্ষেপন করে ধামাচাঁপা দিতে চেয়েছিল বিএনপি। সেটা ব্যর্থ হয়ে এখন আদালতের অপেক্ষমান রায়ে দন্ডিত হওয়ার আশঙ্কায় বিএনপি-জামায়াত দেশব্যাপি অরাজকতা, বিশ্ঙ্খৃলা ও অস্থিতিশীল পরিস্থিতি তৈরির পাঁয়তারা করছে। বক্তারা রায় ঘোষণার দিন বিএনপি-জামায়াতের অগ্নিসন্ত্রাস-নাশকতা ও বিশৃঙ্খলা তৈরির যে কোন অপচেষ্টা কঠোর হাতে দমনের জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানান। 

বক্তারা বলেন, প্রবাসেও বিএনপি-জামায়াতের যে কোন ষড়যন্ত্র রুখে দিতে সতর্ক অবস্থানে রয়েছে আওয়ামী লীগ নেতা-কর্মীরা। রায় ঘোষণার দিন দলের নেতা-কর্মীরা জ্যাকসন হাইটসসহ বাংলাদেশি অধ্যুষিত এলাকাগুলোতে অবস্থান নেবে।

নিউ ইয়র্ক স্টেট আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীন আজমল ও মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ইমদাদুর রহমান চৌধুরীর পরিচালনায় এবং যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের অন্যতম উপদেষ্টা ডা. মাসুদুল হাসানের সভাপতিত্বে এ সমাবেশে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের অন্যতম উপদেষ্টা তোফায়েল চৌধুরী, জাতীয় শ্রমিক লীগের কেন্দ্রীয় আন্তর্জাতিক বিষয়ক সমন্বয়কারী, নর্থ আমেরিকা আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক ও যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুর রহিম বাদশা, সাবেক ছাত্র নেতা ও যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের জনসংযোগ সম্পাদক কাজী কয়েস, আইন বিষয়ক সম্পাদক এ্যাড. শাহ মোঃ বখতিয়ার আলী, মুক্তিযোদ্ধা সংহতি পরিষদের সাধারণ সম্পাদক ফারুক হোসেন, সাবেক যুবলীগ নেতা গোলাম রব্বানী, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের কার্যকরী সদস্য শরীফ কামরুল আলম হীরা, রেজাউল করিম চৌধুরী প্রমুখ। অনুষ্ঠানে বিপুল সংখ্যক দলীয় নেতা-কর্মী উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে পবিত্র কুরআন ও পবিত্র গীতা থেকে পাঠের পর সকল শহীদদের স্মরণে দাঁড়িয়ে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। সমাবেশে বক্তারা ৫ জানুয়ারির নির্বাচন বানচালের নামে এবং পরবর্তীতে সরকার উৎখাতের কর্মসূচির নামে বিএনপি-জামায়াত জোটের ভয়াল অগ্নিসন্ত্রাস, নাশকতা, পেট্টোল বোমা মেরে শত শত মানুষকে পুড়িয়ে হত্যা ও দেশের সম্পদ বিনষ্টের অশুভ তৎপরতার পুনরাবৃত্তি রোধে সরকারকে কঠোর অবস্থানে থাকার আহ্বান জানান। 

উল্লেখ্য, ৮ ফেব্রুয়ারি বহুল আলোচিত জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার রায় ঘোষণা দিন ধার্য রয়েছে।



মন্তব্য