kalerkantho

25th march banner

ট্রাম্পের মনোনয়ন আটকাতে রিপাকলিকানদের নতুন কৌশল

সাবেদ সাথী, নিউ ইয়র্ক প্রতিনিধি   

২২ মার্চ, ২০১৬ ০৪:৫৪



ট্রাম্পের মনোনয়ন আটকাতে রিপাকলিকানদের নতুন কৌশল

মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রিপাবলিকান পার্টিতে ডোনাল্ড ট্রাম্পের মনোনয়ন আটকে দিতে রিপাকলিকান দলের নেতারা নতুন এক কর্মসূচি হাতে নিয়েছেন। দলের ভেতরে ট্রাম্প বিরোধীরা ১০০ দিনের একটি এ কর্মসূচি হাতে নেন। উইসকনসিন অঙ্গরাজ্যে ৫ এপ্রিল অনুষ্ঠেয় প্রাইমারি থেকে পুরো গ্রীষ্ম মৌসুমজুড় চলবে তাদের এই অভিযান। বিশ্লেষকরা একে ‘রাজনৈতিক গেরিলা যুদ্ধ’ হিসেবে অভিহিত করেছেন। মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রিপাবলিকান মনোনয়নপ্রত্যাশী ডোনাল্ড ট্রাম্পের অগ্রযাত্রা রুখে দিতে এককাট্টা হচ্ছেন রিপাবলিকানরা। টেক্সাসের সিনেটর টেড ক্রুজ ও ওহাইওর গবর্নর টেড ক্রুজকে সামনে রেখে তারা প্রথমে নিউইয়র্কের ধনকুবের ট্রাম্পের রাশ টেনে ধরার উদ্যোগ নিয়েছেন। তারা এমন কথাও বলছেন যে, প্রয়োজনে তৃতীয় পক্ষীয় কোন প্রার্থীকে তারা সমর্থন দেবেন। তারা প্রতিটি ডেলিগেটের কাছে পৃথকভাবে গিয়ে হলেও ট্রাম্পের বিরুদ্ধে তাদের রাজি করানোর চেষ্টা করবেন। ট্রাম্পকে আটকাতে তারা প্রয়োজনে একাধিক কৌশলের আশ্রয় নেবেন বলে জানিয়েছেন। একে অন্যকে রাজনৈতিক গেরিলা যুদ্ধ হিসেবে অভিহিত করেছেন। এ ব্যাপারে কাজ করার সময় দ্রুত ফুরিয়ে যাচ্ছে। রক্ষণশীলদের প্রথম লক্ষ্য ক্রুজ ও ক্যাসিককে ঐক্যবদ্ধ করে ট্রাম্পকে আটকানো। এ যাবত ট্রাম্পের কর্মকা- অনেক বিতর্কের জন্ম দিয়েছে। ট্রাম্প যেভাবে বির্তক ও অশালীন মন্তব্য করে মিডিয়ার মনোযোগের কেন্দ্রে চলে এসেছেন রিপাবলিকান অনেকের কাছেই তা এক অস্বস্তির বিষয়। একই সঙ্গে তিনি অনেক দূর এগিয়ে গেছেন। অনেকটা অপ্রতিরোধ্য গতিতে তিনি এগিয়ে যাচ্ছেন। ট্রাম্পবিরোধীদের এক্ষেত্রে সামান্য ভুলও তাকে প্রতিযোগিতায় অনেক দূর এগিয়ে দেবে। ওয়াশিংটনের আর্মি ও নেভি ক্লাবে সম্প্রতি রক্ষণশীলরা একত্রিত হয়ে একটি জোট গঠন করেন। এর নাম তারা দিয়েছেন ‘কনজারভেটিভ এগেইনস্ট ট্রাম্প’। ক্রুজ ও ক্যাসিকের সমর্থকদের রাখা হয়েছে এই জোটের অগ্রভাগে। তারাই মূলত জোটের শক্তি। তবে এখানে অন্যান্য সম্ভাব্য বিকল্পও উন্মুক্ত রাখা হয়েছে। এদের মধ্যে রয়েছে তৃতীয় কোন ব্যক্তি যদি হোয়াইট হাউসের জন্য প্রতিদ্বন্দ্বী হন তবে তাকেও সমর্থন করা। তৃতীয় পক্ষকে সমর্থন করা রিপাবলিকানদের আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ ইস্যু। উইকলি স্ট্যান্ডার্ড পত্রিকার সম্পাদক উইলিয়াম ক্রিস্টল এ বিষয়ে তাদের পরামর্শ দিয়ে সহযোগিতা করছেন।
সম্প্রতি তিনি রক্ষণশীলদের মধ্যে একটি মেমো ইস্যু করেছেন। এতে সম্ভাব্য তৃতীয় প্রার্থী হিসেবে ওকলাহোমার সাবেক সিনেটর টম কোলবার্ন এবং টেক্সাসের সাবেক গবর্নর রিক পেরির নাম উঠে এসেছে। কোলবার্ন সম্প্রতি এক সাক্ষাতকারে বলেন, ট্রাম্পকে অবশ্যই আটকান উচিত। রিপাবলিকান দলের মনোনয়ন পাওয়ার জন্য প্রতিটি অঙ্গরাজ্যের জনপ্রতি প্রদত্ত ভোটগুলো সংখ্যাগরিষ্ঠতার ভিত্তিতে ডেলিগেট ভোটে পরিবর্তিত হবে। একটি রাজ্যে যিনি সংখ্যাগরিষ্ঠ পপুলার ভোট পাবেন তিনি ওই রাজ্যের সবগুলো ডেলিগেট ভোট পেয়েছেন বলে ধরে নেয়া হবে।


মন্তব্য