kalerkantho


নারদার দ্বিতীয় স্টিং ফাঁস, বেকাদায় তৃণমূল কংগ্রেস

সুব্রত আচার্য্য, কলকাতা   

২২ মার্চ, ২০১৬ ০০:৩৭



নারদার দ্বিতীয় স্টিং ফাঁস, বেকাদায় তৃণমূল কংগ্রেস

নারদা ডট কমের স্টিং অপারেশনে তৃণমূল কংগ্রেসের আরো দুই প্রভাবশালী নেতার ঘুষ কান্ডের ভিডিও ফুটেজ প্রকাশ পেল। গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় তেহেলকা ডট কমের প্রাক্তন সাংবাদিক ম্যাথু সেমুয়্যালের নারদা ডট কম তৃণমূল কংগ্রেসের রাজ্যের সাধারণ সম্পাদক শঙ্কদেব পান্ডা এবং আরামবাগ এলাকার সংসদ সদস্য অপরুপা পোদ্দারে ঘুষ নেওয়ার ভিডিও ফুটেজ ফাঁস করে।
তৃণমূল কংগ্রেসের প্রাক্তন রেলমন্ত্রী মুকুল রায়, সাংসদ গৌগত রায়, সাংসদ শুভেন্দু অধিকারী, রাজ্যের মন্ত্রী ববিহামিক, কলকাতার মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়, সাংসদ ও মহিলা তৃণমূল কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সভানেত্রী ডাক্তার কাকলি ঘোষ দস্তিদার সহ এর আগে ১১ জন সাংসদের ঘুষ নেওয়ার ছবি ফাঁস করে নারদা ডট কম। ওই ঘটনার পর ’ফুটেজ জাল’ বলে দাবি করলেও তৃণমূল কংগ্রেস আইনী পদক্ষেপ নেয়নি। যদিও কলকাতা হাইকোর্ট একটি জনস্বার্থ মামলার প্রেক্ষিতে নারদা ডট কমের কাছে আইনী নোটিশ পাঠায়। আজ মঙ্গলবার সেই মামলাটি শুনানী হবে।
নারদা দ্বিতীয় ফুটেজ ফাঁস হওয়ার পর অবশ্য তৃণমূলের তরফে কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। তবে অভিযুক্ত অপরুপা পোদ্দার দাবি করেছেন ফুটেজে যাকে দেখা গেছে আসলে তিনি সেটা নন। শঙ্কদেব পান্ডা অবশ্য এই নিয়ে কোনো মন্তব্য করেননি। ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, শঙ্কদেব পন্ডা স্টিং অপারেশনের ব্যাক্তিকে বলছেন, আমি তাকে দিয়ে সব কাজ করিয়ে নেব। আমি যে কাজ করিয়ে দেব তার জন্য আমার কি লাভ ? আমি তো রাজনীতি ছাড়া আর কিছু করি না। তাই ওই প্রজেক্টে আমার অংশ থাকতে হবে। সাংসদ অপরুপা পোদ্দার ভিডিওতে তার গাড়ির চালককে টাকা রাখার জন্য কালো ব্যাগ আনতে বলছেন। ভিডিওতে তাকে টাকা নিতে এবং গোছাতে দেখা গেছে।
স্টিং কান্ডে রাজ্যজুড়ে তুমুল সমালোচনার মুখে পড়েছে শাসক তৃণমূল কংগ্রেস। বিষয়টি টের পেয়ে মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল কংগ্রেসনেত্রী মমতা ব্যানার্জি অভিযুক্ত নেতাদের নিয়ে নির্বাচনী প্রচারে নামছেন না। রবিবার হাওড়ায় বিধানসভার প্রার্থীদের নিয়ে প্রচার মিছিলে স্টিং কান্ডে ঘুষ নিতে দেখা যাওয়া তৃণমূল সাংসদ প্রসূন ব্যানার্জিকে অংশ নিতে নিষেধ করেন। তাই ওই মিছিলে অভিযুক্তকে দেখা যায়নি। গতকাল সোমবারও কলকাতার প্রচারণায় মিছিলে অভিযুক্ত তৃণমূল নেতাদের রাখনে নি মমতা ব্যানার্জি।
আগামী ৪ এপ্রিল থেকে পশ্চিমবঙ্গের ছয় দফায় সাতদিনের ভোট শুরু হচ্ছে। নির্বাচনী প্রচারে বিরোধীরা স্টিং কান্ডকে বড়সড় হাতিয়ার করছে। গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় কলকাতার বিজেপির রাজ্য দফতরের জয়প্রকাশ মজুমদার নারদা স্টিং অপারেশনের দ্বিতীয় অংশ সাংবাদিকদের দেখান এবং তৃণমূল কংগ্রেস দূনীতিগ্রস্থ বলে অভিযোগ তুলে মমতাকে এর জন্য দায় স্বীকার করে মুখ্যমন্ত্রীর পদ থেকে সরে দাঁড়ানোর পরামর্শ দেন।


মন্তব্য