kalerkantho

গরমে হাঁসফাঁস জনজীবনে, আজও একই পরিস্থিতি

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৬ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চৈত্র মাসের দুই সপ্তাহ পেরিয়েছে। এত দিন তাপমাত্রা কিছুটা সহনীয় থাকলেও গতকাল সোমবার বেশ অস্বস্তি ছিল জনজীবনে। আবহাওয়া তথ্য পর্যালোচনা করে দেখা গেছে, গতকাল সারা দেশেই তাপমাত্রা ছিল আগের দুই সপ্তাহ থেকে বেশি। গতকাল বেশির ভাগ জায়গায় তাপমাত্রা ছিল ৩৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস ছুঁইছুঁই। আজ মঙ্গলবার দেশের প্রায় সব জায়গায় একই পরিস্থিতি থাকতে পারে। তবে আগামীকাল বুধবার গরম কমে আসতে পারে এবং কোথাও কোথাও বৃষ্টি হতে পারে।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের কর্মকর্তা রুহুল কুদ্দুস কালের কণ্ঠকে বলেন, অন্য দিনের তুলনায় সোমবার রোদের প্রখরতা ছিল বেশি। আমাদের সব স্টেশনেই ৩৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসের কাছাকাছি তাপমাত্রা উঠেছে। আজও অসহনীয় রোদ থাকবে। তবে বুধবার থেকে দিনের তাপমাত্রা কিছুটা কমবে। ওই দিন বৃষ্টি হওয়ারও সম্ভাবনা আছে।

আবহাওয়া অফিসের তথ্যে দেখা গেছে, গতকাল রাজশাহী, ঈশ্বরদী ও চুয়াডাঙ্গায় তাপমাত্রা উঠেছে ৩৫.৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। অথচ এক দিন আগ পর্যন্ত এই তিন জেলায় তাপমাত্রা ছিল ৩৪ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে। এক দিনের ব্যবধানে প্রায় ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা বেড়েছে এই তিন জেলায়। ঢাকার তাপমাত্রা গতকাল ৩৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস অতিক্রম করেছে। এক দিন আগে তা ছিল ৩৪ ডিগ্রি সেলসিয়াসে। গতকাল ঢাকার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৫.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এ ছাড়া ফরিদপুর, টাঙ্গাইল, চট্টগ্রামসহ সব জেলায় একই চিত্র। আবহাওয়া অফিস বলছে, আজ দিন ও রাতের তাপমাত্রা বাড়তে পারে। তবে এ মাসে তীব্র তাপদাহের যে আশঙ্কা করা হয়েছিল, তা না হওয়ার সম্ভাবনা বেশি বলে জানিয়েছেন আবহাওয়া কর্মকর্তা রুহুল কুদ্দুস। অবশ্য রংপুর বিভাগে আকাশ আংশিক মেঘলা থাকতে পারে।

মন্তব্য