kalerkantho

সব যান বন্ধ করে দিয়ে ছোট মনিরকে সংবর্ধনা!

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি   

২৫ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



টাঙ্গাইল-২ (ভূঞাপুর-গোপালপুর) আসনের সংসদ সদস্য তানভীর হাসান ছোট মনিরকে গতকাল সংবর্ধনা দেয় জেলা শ্রমিক ফেডারেশন। অভিযোগ উঠেছে, এই সংবর্ধনা দিতে টাঙ্গাইল শহরের সব রিকশা, ইজি বাইক ও সিএনজিচালিত অটোরিকশা বন্ধ রাখার নির্দেশ দেয় ফেডারেশন। আর এতে চরম ভোগান্তিতে পড়ে শহরবাসী। তবে শ্রমিক ফেডারেশনের দাবি, কাউকে যানবাহন বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়নি। শ্রমিকরা স্বেচ্ছায় অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছে।

বিকেল ৩টায় শহরের শহীদ স্মৃতি পৌর উদ্যানে হয় এ সংবর্ধনা। সেই অনুষ্ঠানে যোগ দিতে টাঙ্গাইল জেলা রিকশা-অটো শ্রমিক ইউনিয়ন, সিএনজি শ্রমিক ইউনিয়ন, ট্রাক শ্রমিক ইউনিয়ন, কুলি শ্রমিক ইউনিয়নসহ সব শ্রমিক সংগঠনের নেতাকর্মী ও সদস্যদের উপস্থিত থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়। নির্দেশমতো গতকাল দুপুর ২টার পর থেকে শহরে রিকশা, ইজি বাইকসহ যাত্রী চলাচলের জন্য সব ধরনের যানবাহন বন্ধ রাখা হয়। কেউ যাতে রিকশা বা অটো চালাতে না পারে, সে জন্য শহরের বিভিন্ন পয়েন্টে অবস্থান নেয় ফেডারেশনের লোকজন। রিকশা দেখামাত্র তারা চাকা পাংচার করে দেয়। এমনকি রোগীদের রিকশাও যেতে দেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ পাওয়া যায়।

গতকাল দুপুরের পর থেকে টাঙ্গাইল শহরের প্রায় সড়কই ছিল ফাঁকা। শহরের পুরনো বাসস্ট্যান্ড, নতুন বাসস্ট্যান্ড, বেবিস্ট্যান্ড, নিরালার মোড়, বটতলাসহ বিভিন্ন স্থানে সাধারণ মানুষকে হেঁটে চলাচল করতে দেখা গেছে।

শহরের ছাত্তার শপিং মলের সামনে রেখা আক্তার নামে এক যাত্রী অভিযোগ করেন, ‘আমার প্যারালাইসড মাকে নিয়ে রিকশায় যাওয়ার সময় শ্রমিক নেতারা চাকার হাওয়া ছেড়ে দেন। পরে পাংচার চাকা নিয়েই রিকশাচালক আমাদের গন্তব্যে পৌঁছে দিতে রওনা হন।’ তিনি বলেন, ‘একজনকে সংবর্ধনা দেওয়ার জন্য সাধারণ মানুষকে ভোগান্তির শিকার হতে হচ্ছে। এর দায়ভার কে নেবে?’

ব্যাটারিচালিত অটোরিকশার এক চালক বলেন, ‘রিকশা নিয়ে আসার সময় আমার সঙ্গে শ্রমিক অফিসের লোকজন খুব খারাপ আচরণ করেছে। তাই অটো বন্ধ রাখতে হয়েছে। সংবর্ধনা দেবেন নেতারা। সেখানে আমরা গিয়ে কী করব। এ ছাড়া সকালের শিফটের চালকরা অনুষ্ঠানে থাকলেই তো চলত। বিকেলের শিফটের চালকদের থাকার কোনো প্রয়োজন ছিল না।’

এসব অভিযোগের ব্যাপারে টাঙ্গাইল জেলা শ্রমিক ফেডারেশনের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বালা মিয়া কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘ফেডারেশনের পক্ষ থেকে কাউকে রিকশা, অটো বা যানবাহন বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়নি। তারা ইচ্ছা করেই বন্ধ রেখে অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছে।’

মন্তব্য