kalerkantho

সমরাস্ত্র প্রদর্শনী উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৫ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সমরাস্ত্র প্রদর্শনী উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গতকাল তেজগাঁও প্যারেড স্কয়ারে সেনা, নৌ ও বিমানবাহিনীর সম্মিলিত সমরাস্ত্র প্রদর্শনী উদ্বোধন করেন। পরে তিনি প্রদর্শনীর স্টলগুলো ঘুরে দেখেন। ছবি : পিআইডি

মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ সম্মিলিত সামরিক বাহিনীর সমরাস্ত্র প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গতকাল রবিবার বিকেলে রাজধানীর তেজগাঁও পুরনো বিমানবন্দরে জাতীয় প্যারেড স্কয়ারে ফিতা কেটে সপ্তাহব্যাপী সেনা, নৌ ও বিমান সমরাস্ত্র প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন তিনি।

এ সময় মিগ-২৯সহ বিমানবাহিনীর ছয়টি জঙ্গিবিমান প্যারেড স্কয়ারের ওপর দিয়ে দর্শনীয় উড্ডয়ন প্রদর্শন করে। পাশাপাশি ছত্রীসেনারা প্যারেড স্কয়ারে সফলভাবে অবতরণ করে।

প্রধানমন্ত্রী প্রদর্শনীস্থলে পৌঁছলে সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ, নৌবাহিনী প্রধান অ্যাডমিরাল আবু মোজাফফর মহিউদ্দিন মোহাম্মদ আওরঙ্গজেব চৌধুরী, বিমানবাহিনী প্রধান এয়ার চিফ মার্শাল মাসিহুজ্জামান সেরনিয়াবাত এবং সশস্ত্র বাহিনী বিভাগের প্রিন্সিপাল স্টাফ অফিসার লেফটেন্যান্ট জেনারেল মো. মাহফুজুর রহমান তাঁকে অভ্যর্থনা জানান।

প্রধানমন্ত্রী সেনা, নৌ ও বিমানবাহিনীর বিভিন্ন স্টল ও প্যাভিলিয়ন ঘুরে দেখেন। পরিদর্শনকালে প্রধানমন্ত্রীকে স্টল ও সমরাস্ত্রের পরিচিতিমূলক বর্ণনা দেওয়া হয়। পরে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উপভোগ করেন প্রধানমন্ত্রী।

এ সময় মন্ত্রিপরিষদের সদস্য, প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা, সংসদ সদস্য, বাংলাদেশে নিযুক্ত বিভিন্ন দেশের কূটনৈতিক মিশনের প্রধানরা এবং ঊর্ধ্বতন সামরিক ও বেসামরিক কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এ সমরাস্ত্র প্রদর্শনী আগামী ২৬ থেকে ৩১ মার্চ প্রতিদিন সকাল সাড়ে ৯টা থেকে বিকাল সাড়ে ৫টা পর্যন্ত সর্বসাধারণের জন্য উন্মুক্ত থাকবে। এ ছাড়া ৩০ মার্চ দুপুর ১২টা থেকে বিকেল সাড়ে ৫টা পর্যন্ত সর্বসাধারণের সঙ্গে ঢাকা শহরের স্কুল-কলেজের ছাত্র-ছাত্রী এবং ৩১ মার্চ দুপুর ১২টা থেকে বিকেল সাড়ে ৫টা পর্যন্ত সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যদের পরিবার ও বাহিনীত্রয় পরিচালিত স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীদের জন্য প্রদর্শনী উন্মুক্ত থাকবে।

জবির নতুন ক্যাম্পাসের নকশা উপস্থাপন : এদিকে গতকাল সকালে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) নতুন ক্যাম্পাস ও বিদ্যুৎ ব্যবস্থাপনা ইনস্টিটিউটের নকশা উপস্থাপন করা হয়।  এ নকশা দেখে সন্তোষ প্রকাশ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনে পর্যাপ্ত খেলার মাঠ এবং জলাশয়ের ব্যবস্থা রাখার নির্দেশ দিয়েছেন।

 

 

 

মন্তব্য