kalerkantho

পর্যটকদের বিনোদনে বহুমাত্রিকতা

যাত্রা শুরু করছে ‘কক্স কার্নিভাল’

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৪ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পৃথিবীর দীর্ঘতম সমুদ্রসৈকত কক্সবাজারে ঘুরতে যাওয়া পর্যটকদের বিনোদনে বহুমাত্রিকতা যোগ করতে যাত্রা শুরু করেছে কক্স কার্নিভাল নামের একটি সাংস্কৃতিক প্রদর্শনী কেন্দ্র। আধুনিক এই সাংস্কৃতিক প্রদর্শনী কেন্দ্রটি নির্মাণে বিনিয়োগ করেছেন বেসরকারি উদ্যোক্তারা। সমুদ্রভ্রমণের পাশাপাশি দেশ-বিদেশের শিল্পীদের বিভিন্ন প্রদর্শনী এবং পরিবেশনা উপভোগ করতে পারবে পর্যটকরা। গত বছরের সেপ্টেম্বরে কক্স কার্নিভালটি উদ্বোধন করা হলেও আগামী মঙ্গলবার স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে দর্শনার্থীদের জন্য খুলে দেওয়া হচ্ছে এটি।

উদ্যোক্তারা জানান, কক্সবাজারের লাবণী পয়েন্টের মোটেল প্রবালের পাশেই অবস্থান কক্স কার্নিভালের। আন্তর্জাতিক মানের এ বিনোদনকেন্দ্রটিতে পর্যটকরা সারা বছর দেশি-বিদেশি শিল্পীদের পরিবেশনা উপভোগ করতে পারবে। বিনোদনের পাশাপাশি আন্তর্জাতিক ও স্থানীয় সংস্কৃতির সঙ্গে পর্যটকদের পরিচয় করিয়ে দিতেই বানানো হয়েছে সাংস্কৃতিক কেন্দ্রেটি। একসঙ্গে দুই হাজার দর্শক কক্স কার্নিভালে শো উপভোগ করতে পারবে। বিনোদনকেন্দ্রটির রয়েছে ৯ হাজার ৬৫০ বর্গফুটের গ্যালারি, দুই হাজার ১০০ বর্গফুটের একটি মঞ্চ এবং তিন হাজার বর্গফুটের গাড়ি রাখার মুক্ত স্থান। এ ছাড়া কক্স কার্নিভালে রাখা হয়েছে সর্বাধুনিক প্রযুক্তির সাউন্ড ও লাইটিং সিস্টেম।

উদ্যোক্তারা আরো জানান, আগামী মঙ্গলবার স্বাধীনতা দিবসকে সামনে রেখে কক্স কার্নিভালে লাইভ কনসার্ট, ডান্স প্রগ্রাম এবং ফ্যাশন শো আয়োজন করা হয়েছে। গত বছরের সেপ্টেম্বরে উদ্বোধনের পর এটিই হতে যাচ্ছে কক্স কার্নিভালের প্রথম বাণিজ্যিক কর্মসূচি। আগামী ২৬ মার্চ কক্স কার্নিভালের মঞ্চ মাতাবেন জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী কণা ও তাঁর সহশিল্পীরা। এ ছাড়া অভিনয়শিল্পী তারিন থাকবেন স্বাধীনতা দিবসের কর্মসূচিতে। ফ্যাশন শোতে থাকবেন কোরিওগ্রাফার লুনাসহ বাংলাদেশের প্রখ্যাত র‌্যাম্প মডেলরা।

স্বাধীনতা দিবসের কর্মসূচি সম্পন্ন হওয়ার পর ম্যাজিক শো, লাইভ কনসার্ট, বাদ্যযন্ত্র শো, ডান্স ও থিয়েটার প্রদর্শনের আয়োজন করা হবে বলে জানিয়েছেন উদ্যোক্তারা। একই সঙ্গে পরে অ্যাক্রোবাটিকস, স্ট্যান্ট এবং নৃত্যসহ নানা কর্মসূচি নিয়মিত করা হবে বলেও জানান তাঁরা।

কক্স কার্নিভালের মূল প্রতিষ্ঠান ইনডিগো ডটবিডির কর্ণধার ও আবাসন খাতের ব্যবসায়ীদের সংগঠন রিহ্যাব প্রেসিডেন্ট আলমগীর শামসুল আলামিন কাজল কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘পর্যটন শিল্প বিকাশে এবং পর্যটকদের বিনোদনের ব্যবস্থা করতে এই আয়োজন আমাদের। ভবিষ্যতে বিনোদনের পরিসর আরো বাড়ানোর পরিকল্পনা রয়েছে আমাদের।’

মন্তব্য